শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

নেত্রকোনায় বসন্তকালীন সাহিত্য উৎসব

আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৩৮ এএম

নেত্রকোনায় গতকাল বুধবার শুরু হয়েছে দুদিনবাপী ২৩তম বসন্তকালীন সাহিত্য উৎসব ও খালেকদাদ চৌধুরী সাহিত্য পুরস্কার প্রদান। ১৯৯৭ সাল থেকে প্রতিবছর একজন বরেণ্য লেখক, কবি, সাহিত্যিককে এ পুরস্কার দেয় নেত্রকোনা সাহিত্যসমাজ। বরাবরের মতো এবারও নেত্রকোনা সাহিত্যসমাজ দুদিনব্যাপী এই উৎসবের আয়োজন করেছে।

সাহিত্য সমালোচক ও প্রাবন্ধিক রফিকউল্লাহ খান ও কবি মারুফুল ইসলামকে এ বছর খালেকদাদ চৌধুরী সাহিত্য পুরস্কার প্রদান করা হবে।

আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ এমরান জানান, শহরের মোক্তারপাড়া এলাকায় পাবলিক লাইব্রেরি চত্বরের বকুলতলায় ফাল্গুনের প্রথম দিন সকাল ৯টার দিকে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে জাতীয় ও সাংগঠনিক পতাকা উত্তোলন এবং ভাষাশহীদসহ সব শহীদের আত্মার শান্তি কামনা করে উৎসব উদ্বোধন করা হয়। এরপর জেলা উদীচী পরিচালিত হায়দার-শেলী স্মৃতি সংগীত বিদ্যানিকেতনের পরিবেশনায় হয় ‘বসন্ত বন্দনা’। সকাল ১০টায় বের করা হয় আনন্দ শোভাযাত্রা।

এছাড়া দিনের বিভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠিত হয় শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, প্রখ্যাত বংশীবাদক মো. মুখলেছুর রহমানের একক বাঁশির সুর, সঞ্জিত কুমার ঘোষের তবলার লহরি, আশিস সরকারের পরিচালনায় স্বরচিত কবিতা, ছড়া ও গল্প পাঠ, আরাফাত সিদ্দিকীর পরিচালনায় নতুন প্রকাশিত বইয়ের পাঠ উন্মোচন, আলোচনা।

দ্বিতীয় পর্বে বেলা ৩টার দিকে হয়েছে সঞ্জয় সরকারের পরিচালনায় আবারও স্বরচিত কবিতা ও ছড়াপাঠ। এরপর বারীণ ঘোষ ও দিলশাদ সিদ্দিকার কণ্ঠে অসীমের ধ্বনি দ্বৈত কবিতা আবৃত্তি। বিকেল সাড়ে ৪টায় নব্বই-পরবর্তী বাংলা কবিতা এবং বাংলা কথাসাহিত্যের স্বর ও স্বাতন্ত্র বিষয়ে প্রবন্ধ পাঠ করেন মৃদুল মাহবুব। আলোচনা করেন কবি রানা নাগ, কবি স্নিগ্ধা বাউল, কথাশিল্পী রুমা মোদক, কবি মামুন খান, কবি গণি আদম, কথাশিল্পী স্বকৃত নোমান, কথাশিল্পী শাহরিয়ার বিপ্লব, কথাশিল্পী মোজাফফর হোসেন, কবি মাসুম মোকারম ও কবি আহমেদ স্বপন মাহমুদ। এতে সভাপতিত্ব করেন লোকগবেষক সুমন কুমার দাস। সন্ধ্যা ৭টায় খালেকদাদ চৌধুরী সাহিত্য পুরস্কার প্রদান। আলোচনা করেন প্রাবন্ধিক অধ্যাপক যতীন সরকার, শিক্ষাবিদ সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, বিশিষ্ট লোকগবেষক ও প্রাবন্ধিক শামসুজ্জামান খান, কবি নির্মলেন্দু গুণ ও প্রাবন্ধিক ফরিদ কবির।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত