শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

টানা চার হারে ধূসর মোহামেডান

আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:৫৩ এএম

ঢাকার ফুটবলে সাদা-কালোর জেল্লা অনেক আগেই মলিন হয়ে গেছে। পেশাদার যুগে ফুটবলের প্রবেশের পর থেকেই ম্লান মোহামেডান। তাই বলে লিগে টানা চার ম্যাচ হার! পেশাদার লিগে টানা চার ম্যাচে হারার রেকর্ড নেই মোহামেডানের। চলতি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে টানা চার ম্যাচ হেরে সাদা-কালো ঐতিহ্যের রংটা একেবারেই চটে গেছে। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে গতকাল সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব তাদের হারিয়েছে ২-১ গোলের ব্যবধানে। সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে দিনের অপর ম্যাচে শেখ রাসেল ১-০ গোলে হারিয়েছে চট্টগ্রাম আবাহনীকে। ৬৫ মিনিটে জয়সূচক গোলটি করেন বদলি মিডফিল্ডার খালিকুজ্জামান।

টিম বিজেএমসিকে ২-১ গোলে হারিয়ে মোহামেডানের লিগের শুরুটা হয়েছিল ভালোই। কিন্তু এরপর থেকে ঘটে ছন্দপতন। একের পর এক ম্যাচ হেরেছে আরামবাগ, ব্রাদার্স, শেখ রাসেল এবং সর্বশেষ কাল সাইফের কাছে। পাঁচ ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় তারা ১১তম স্থানে। ষষ্ঠ ম্যাচে চার জয় এবং এক ড্রতে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে সাইফ দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে।

ম্যাচের শুরু থেকেই প্রাধান্য বিস্তার করে খেলেছে সাইফ। ১১ মিনিটেই এগিয়ে যায় তারা। কোরিয়ান প্লেমেকার সিংগুইল পার্কের পাস ধরে বক্সের বেশ বাইরে থেকে রাশিয়ান ফরোয়ার্ড ডেনিস বলশাকভ যে শট নেন তা আগুয়ান কিপার সারওয়ার জাহানের মাথার ওপর দিয়ে জালে প্রবেশ করে। ২৯ মিনিটে ব্যবধান বাড়িয়ে নেওয়ার সুযোগ নষ্ট করেন পার্ক। মোহামেডান কিপার সারওয়ার বক্সের ভেতরে তাকে ফেলে দিলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। কিন্তু স্পট থেকে পার্কের নেওয়া শট সাইড বারে লেগে বাইরে চলে যায়। ৩৮ মিনিটে ভালো আরেকটি সুযোগ পেয়েছিল সাইফ। জামাল ভূঁইয়ার ফ্রিকিক সারওয়ার ফ্লাইট মিস করলে মোহামেডানের নাইজেরিয়ান ডিফেন্ডার ওরিয়াকু চেতাচি হেডে বল ক্লিয়ার করলে সে যাত্রায় বেঁচে যায় সাদা-কালোরা।

দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয় মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। এবারও গোলের উৎসে ছিলেন সিংগুইল পার্ক। বাঁদিক দিয়ে ঢুকে তার কাট ব্যাকে ছোট ডি-বক্সের ওপর থেকে কলম্বিয়ান আন্দ্রেস কর্দোবার প্লেসিং জালে জড়ায়। ৫৪ মিনিটে মিডফিল্ডার শেখ গালিব নেওয়াজের আচমকা দূরপাল্লার শট বাঁদিকে ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন সাইফ কিপার জিয়াউর রহমান। ৬৭ মিনিটে ব্যবধান কমায় মোহামেডান। বদলি উইঙ্গার পাশবন মোল্লার কর্নারে কিংসলে চিগোজির হেডে বদলি স্ট্রাইকার আমির হাকিম বাপ্পি ব্যাক হেডে বল জালে জড়িয়ে দেন। ৯০ মিনিটে ডানপ্রান্ত থেকে এমিলির ক্রসে বাপ্পির হেড সরাসরি জিয়ার গ্লাভসে। ফলে আরেকটি হারের লজ্জা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় মোহামেডানকে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত