শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ভবন সংকটে শিক্ষকের বাড়ির উঠানে পাঠদান

আপডেট : ০১ মার্চ ২০১৯, ১০:৩৫ পিএম

টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার আকুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন হস্তান্তর না হওয়ায় দীর্ঘদিন এ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এক শিক্ষকের বাড়ির উঠানে চলছে পাঠদান। একসঙ্গে তিন শ্রেণির পাঠদান চলায় শিক্ষক-শিক্ষার্থী কেউ কারও কথা ঠিকভাবে শুনতে পায় না। সরেজমিনে গত মঙ্গলবার সকালে নাগরপুর উপজেলা সদর থেকে ৮ কিলোমিটার দূরে স্বল্প আকুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় এমন চিত্র। ভবন সংকটে কয়েক বছর ধরেই বিদ্যালয় এমন বেহাল। বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোছা. রুনা আক্তার বলেন, ‘নতুন ভবনের কাজ শুরু হওয়ার পর পুরনো ভবনে খুব কষ্ট করে ক্লাস চলছিল। কিন্তু গত বছর বন্যায় বিদ্যালয়ে পানি উঠলে ঊর্ধ্বতন কর্র্তৃপক্ষের পরামর্শে পাঠদান কার্যক্রম সহকারী শিক্ষক শরীফার বাড়িতে স্থানান্তর করি। বর্ষা মৌসুমের আগে যদি দ্রুত ভবন হস্তান্তর না করা হয়, তাহলে শিক্ষার্থীদের পাঠদান কার্যক্রম অব্যাহত রাখা কঠিন হয়ে পড়বে।’ উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘গত বছর বন্যার সময় বিদ্যালয়ে পানি ওঠায় আমরা সাময়িকভাবে বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম স্থানান্তর করি। দীর্ঘদিনেও আমাদের কাছে নতুন ভবন স্থানান্তর না করায় আমরা বেশ বিপাকে পড়েছি।’

এদিকে নবনির্মিত ভবনটি হস্তান্তরের আগেই এর বিভিন্ন অংশে ফাটল দেখা দিয়েছে। মেসার্স এসএসবি এন্টারপ্রাইজ ২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৮৯ লাখ ৭১ হাজার ৯৩২ টাকা ব্যয়ে বিদ্যালয় ভবনটি নির্মাণ করে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য জামাল উদ্দিন বলেন, নবনির্মিত বিদ্যালয় ভবনটিতে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজ করায় এর বিভিন্ন অংশে ফাটল দেখা দিয়েছে। এ বিষয়ে ঠিকাদার মনির হোসেন বলেন, ভবনের কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে না পারায় ও ভবনের নিচের অংশে এঁটেল মাটি থাকার কারণে ভবনে ফাটলের সৃষ্টি হয়েছে। ভবনটি হস্তান্তরের আগে তা মেরামত করে দেওয়া হবে। এ ব্যাপারে নাগরপুর উপজেলা প্রকৌশলী শাহীনুর আলম বলেন, ‘প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবন নির্মাণের সময় ময়মনসিংহ জোনের একটি প্রতিনিধিদলের পরিদর্শন করার কথা। তারা এখনো তা করেননি। আর ফাটলের বিষয়টি আমি দেখেছি, এখানে মূল বিল্ডিংয়ের কোনো ক্ষতি হবে না।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত