মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

দোলেশ্বরকে ফাইনালে তুললেন ফরহাদ রেজা

আপডেট : ০১ মার্চ ২০১৯, ১১:২৬ পিএম

বোলিংয়ে ৫ উইকেট নেওয়ার পর ব্যাট হাতেও দলের ত্রাতা হয়ে দেখা দিলেন ফরহাদ রেজা। ৮ বলে খেললেন ২৪ রানের ইনিংস। এই ৩২ বছর বয়সীর অলরাউন্ড নৈপুণ্যে প্রিমিয়ার টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব। রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে দলটি প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবকে হারিয়েছে ৬ উইকেটে।

শুক্রবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে দিনের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে প্রাইম ব্যাংককে আগে ব্যাটিংয়ে পাঠায় দোলেশ্বর। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৭০ রান করে প্রাইম ব্যাংক। জবাবে ২ বল বাকি থাকতে জয় নিশ্চিত করে দ্বোলেশ্বর। ৩ মার্চ একই মাঠে শেখ জামালের বিপক্ষে মাঠে শিরোপার লড়াইয়ে নামবে দলটি।

এদিন দোলেশ্বরের সম্মিলিত বোলিংয়ে ৭১ রানে ৫ উইকেট হারিয়েছিল প্রাইম ব্যাংক। সেখান থেকে দলকে টেনেছেন জাকির হাসান ও অলক কাপালি। ষষ্ঠ উইকেটে দুজনে গড়েন ৬৫ রানের জুটি। জাকির ৩৯ বলে ৫২ রানের ইনিংস খেলেন ৫ চার ও ১ ছক্কায়। কাপালি ৩১ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় করেন ৫৫ রান।

জাকির ও কাপালি দুজনই ফিরেছেন ফরহাদ রেজার বলে। ১৯তম ওভারে কাপালি সহ মনির হোসেন ও মোহর শেখকে টানা তিন বলে ফেরান ফরহাদ রেজা। তবে মাঝে একটি ওয়াইড দেওয়ায় হ্যাটট্রিক পাননি। ৪ ওভারে ৩২ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিয়েছেন ফরহাদ রেজা। টি-টোয়েন্টিতে যা তার ক্যারিয়ার সেরা বোলিং।

জবাব দিতে নেমে সাইফ হাসানের ব্যাটে ভালো শুরু পায় দ্বোলেশ্বর। মোহাম্মদ আরাফতকে নিয়ে প্রথম উইকেটে যোগ করেন ৫১ রান। এরপর মার্শাল আইয়ুবের সঙ্গে তৃতীয় উইকেটে ৬৮ রান যোগ করেন সাইফ। ৪৯ বলে ৬১ রান করে ফিরে যান তিনি। ৫টি চারের সঙ্গে হাঁকান ২টি ছক্কা।

সাইফ যখন ফেরেন দোলেশ্বরের দলীয় রান তখন ১২৮। এরপর দলীয় ১৫৩ রানে ফিরে যান মার্শাল আইয়ুব। ৩১ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ৪৬ রান করেন মার্শাল।

বাকি কাজটা নিজের কাঁধে তুলে নেন ফরহাদ রেজা। যখন উইকেটে আসলেন তখন শেষ তিন ওভারে ৪৩ রানের সমীকরণ ছিল দলটির সামনে। ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে সেই সমীকরণ মিলিয়েছেন দোলেশ্বরের অধিনায়ক ফরহাদ রেজা। ৮ বলে ২৪ রান করেন তিনি ২টি করে চার ও ছক্কায়।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত