শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

‘তুমি বললে’ মিষ্টি প্রেমের গল্প

আপডেট : ০১ মার্চ ২০১৯, ১১:৫৯ পিএম

ভালোবাসা দিবসের অন্য সব নাটকের মতো এই নাটকের গল্পও রোমান্টিক। তবে এই নাটকের গল্প বলার ধরন কিছুটা ভিন্ন। অপূর্ব ও সাফার দেখা হওয়াটা কিছুটা ভিন্ন ছিল অন্য নাটকগুলো থেকে। অপূর্বর নতুন রেস্টুরেন্টের বিজ্ঞাপনের জন্য একজন মেয়ে মডেল দরকার, যে হবে একটু স্বাস্থ্যবান। অপূর্ব তার বর্তমান মডেল নিয়ে সন্তুষ্ট নন। তাই তিনি মনের মতো একজন মডেলকে খুঁজতে থাকেন। তিনি একজন মেয়েকে খুঁজে পান যে সাফা কবিরের বন্ধু। শ্যুটিংয়ের দিন সাফা তার বন্ধু মিষ্টির সঙ্গে আসে অপূর্বর রেস্টুরেন্টে। এভাবেই দেখা তাদের দুজনের। এরপর গল্প এগিয়ে যায় তার নিজ গতিতে।

মাহমুদুর রহমান হিমি মোটামুটি ভালো কাজ দেখিয়েছেন এই নাটকে।

 এবার আসা যাক অভিনয় প্রসঙ্গে। অপূর্ব বরাবরের মতোই সাবলীল। সত্যি বলতে রোমান্টিক নাটকে অপূর্ব সাবলীলই থাকেন। তবে তার এ থেকে বের হয়ে একটু ভিন্নধর্মী ক্যারেক্টারে অভিনয় করা উচিত। সব নাটকেই ঘুরেফিরে তার একই ধরনের চরিত্র। যদিও দর্শক এখনো অপূর্বকে রোমান্টিক হিরো হিসেবে ভালোভাবে গ্রহণ করছেন। তবে দেখার বিষয়, কত দিন দর্শক অপূর্বকে এভাবে দেখতে চান। আর সাফা কবিরও মোটামুটি ভালো অভিনয় করেছেন। শুরুতে সাফা কবিরের অভিনয়ে বেশ জড়তা ছিল। আস্তে আস্তে জড়তা কাটিয়ে উঠছেন তিনি। তবে দিন দিন তার অভিনয়ের উন্নতি চোখে পড়ছে। সবচেয়ে ভালো লেগেছে মিষ্টি চরিত্রে অভিনয় করা নতুন মেয়েটি। নতুন হিসেবে বেশ সাবলীল ছিল তার অভিনয়। আর এখন সব নাটকে বন্ধু চরিত্রে অভিনয় করা অন্যতম নাম আনন্দ খালেদ। তিনিও বেশ সাবলীল তার জায়গা থেকে।

নাটকের ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর এবং গান বেশ শ্রুতিমধুর। নাটকের খারাপ দিক বলতে কিছু জায়গায় সংলাপ একঘেয়েমি লেগেছে। এ ছাড়া বাকি সবকিছু ঠিকঠাক ছিল। বলতে গেলে রোমান্টিক নাটকের সব উপাদান আছে নাটকটিতে।

তবে এত বেশি রোমান্টিক নাটকের ভিড়ে মনে রাখার মতো নাটক খুবই কম হচ্ছে। সব নাটকের গল্পগুলো ঘুরেফিরে একই রকম মনে হচ্ছে। বাইরের দেশের রোমান্টিক সিরিজগুলোতে রোমান্টিকতার পাশাপাশি বিভিন্ন সোশ্যাল ইস্যু, থ্রিলারসহ নানা ধরনের গল্প থাকে। আশা করি বাংলা রোমান্টিক নাটকগুলোতেও আমরা ভিন্নধর্মী কিছু দেখতে পাব।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত