রোববার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

শিল্পকলায় এনবিআর চেয়ারম্যান

কর হার কমিয়ে হলেও বাড়ানো হবে আওতা

আপডেট : ০৪ মার্চ ২০১৯, ০৩:৫০ এএম

করের আওতা বাড়াতে প্রয়োজনে কর হার কমানোর কথা জানিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া। তিনি বলেন, ‘করের আওতা বাড়াতে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে, তিনিও প্রয়োজনে করহার কমানোর ব্যাপারে একমত হয়েছেন। এ নিয়ে পর্যালোচনার জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

গতকাল রবিবার রাজধানীর শিল্পকলা

 একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় কর অঞ্চল-১ আয়োজিত ‘অংশীজন রাজস্ব সংলাপ’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা জানান। এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, ‘করদাতা বৃদ্ধির জন্য বাড়ি, ফ্ল্যাটসহ অন্যান্য খাতে জরিপ শুরু হয়েছে। তথ্য সংগ্রহের সময় করদাতাদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একজন করদাতা হয়তো আগে কর দেননি। পুরনো বিষয় জিজ্ঞেস করলে হয়তো করদাতাদের মধ্যে ভীতি তৈরি হবে।’

অসৎ কর কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘প্রত্যেককে রাজস্ববান্ধব ও সৎ হতে হবে। প্রয়োজনে অসৎ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের শাস্তি দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চাই।’ মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘দেশের ১৬ কোটি মানুষ হলেও সরাসরি এক কোটি মানুষও কর দেয় না। তবে উৎসে করসহ হিসাব করলে করদাতার সংখ্যা কোটি হবে। রিটার্ন দেয় ২০ লাখের কম।’

কর জিডিপির হার না বাড়ালে উন্নয়ন দুরূহ হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘কর আদায় না বাড়ালে সরকার ব্যাংক খাত থেকে ঋণ নেবে। এর ফলে বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ কমে যাবে।’ গণপরিবহন খাত থেকে কর আদায়ের তাগিদ দিয়ে মোশাররফ বলেন, ‘এ খাতে কর বৃদ্ধি করতে গেলে একটি গোষ্ঠী ঐক্যবদ্ধভাবে ব্যাঘাত ঘটায়। ভাড়া বাড়িয়ে দেয়। সময় এসেছে আলোচনার মাধ্যমে এ খাত থেকে কর আদায় বৃদ্ধি করার।’

তিনি বলেন, ‘অনেকেই সম্পত্তি কিনে রাখে। এক সময় এর দাম বেড়ে যায়। কিন্তু বৃদ্ধি করা দাম অনুযায়ী কর আদায় হয় না। এছাড়া সম্পত্তি রেজিস্ট্রেশন ফি অনেক বেশি, কিন্তু কর কম। আমাদের প্রস্তাব, রেজিস্ট্রেশন ফি কমিয়ে করের আওতা বাড়ানো উচিত।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এনবিআর সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) কালিপদ হালদার বলেন, ‘করদাতাবান্ধব পরিবেশ নিশ্চিতে ভীতি দূর করতে হবে।’ অনুষ্ঠানে কর অঞ্চল-১ এর কমিশনার নাহার ফেরদৌসী বেগমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য দেন সোনালী ব্যাংকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ, কাতার এয়ারওয়েজ বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার জয় প্রকাশ নায়ার। অনুষ্ঠানে কর অঞ্চল-১ এর আওতাধীন ৯৮টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ৩৪টি এয়ারলাইন্সের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত