মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

মোশাররফ বলেন

শপথ সুলতান মোকাব্বিরের ব্যক্তিগত বিষয়

আপডেট : ০৪ মার্চ ২০১৯, ০৩:৫৬ এএম

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিদ্ধান্ত অমান্য করে গণফোরাম নেতা সুলতান মোহাম্মদ মনসুর ও মোকাব্বির খানের শপথ গ্রহণের ঘোষণাকে তাদের ‘ব্যক্তিগত বিষয়’ বলে মন্তব্য করেছেন জোটের প্রধান শরিক বিএনপির নেতা ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। গতকাল রবিবার বিকেলে কৃষক দলের সদ্যঘোষিত আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের নিয়ে দলের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে এ কথা বলেন তিনি।

গত ৩০ ডিসেম্বরের একাদশ সংসদ নির্বাচনে ‘ভোট ডাকাতির’ অভিযোগ তোলা ঐক্যফ্রন্ট তাদের নির্বাচিতদের সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ না নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু আগামী ৭ মার্চ শপথ নিতে চান জানিয়ে গত শনিবার সংসদের স্পিকারকে চিঠি পাঠিয়েছেন সুলতান মনসুর ও মোকাব্বির খান।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘আগামী ৭ মার্চ সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেওয়ার যে ঘোষণা গণফোরামের দুই নেতা দিয়েছেন, তা তাদের ব্যক্তিগত বিষয়। তাদের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে গণফোরাম। তবে বিএনপির কেউ শপথ নেবেন না।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের জনগণ জানে, একাদশ সংসদ নির্বাচনে তারা ভোট দিতে পারেননি। বিএনপি এই তথাকথিত ভোট ডাকাতির নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত রয়েছে, যারা নির্বাচিত হয়েছেন তারা কেউ শপথ নেবেন না, সংসদে যোগ দেবেন না। এটাই সর্বশেষ সিদ্ধান্ত।’

মৌলভীবাজার-২ আসনে ‘ধানের শীষ’ প্রতীকে নির্বাচিত সুলতান মনসুরের বিরুদ্ধে দলীয়ভাবে ব্যবস্থা গ্রহণের সুযোগ আছে কি না, জানতে চাইলে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘শপথ নেওয়ার পরে দলের বিধিবিধান অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

গণফোরামের দুই নেতা সংসদে যোগ দিলে বিএনপির সঙ্গে জোটের কোনো টানাপড়েন সৃষ্টি হবে কি না এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাবে না। বড় একটা লক্ষ্য নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করা হয়েছে। বিএনপি হচ্ছে এই ফ্রন্টের প্রধান ও বৃহত্তম দল। বিএনপি বিশ্বাস করে, গণফোরামের কেউ যদি সংসদে যোগ দেয়ও তাতে ঐক্যফ্রন্টের যে একটা বৃহৎ লক্ষ্য আছে সেখানে কোনো অসুবিধা হবে না।’

গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিষয়ে ড. মোশাররফ বলেন, ‘গ্যাসের দাম তারা কয়েকগুণ বৃদ্ধি করে আজকে যে অবস্থায় নিয়ে গেছে তাতে আবার যদি গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি করা হয় তাহলে এটা হবে মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা। বিএনপি সরকারের এমন পদক্ষেপের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে।’ আসন্ন উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘নৌকা প্রতীকে যারা মনোনয়ন পাবেন তারাই বিজয়ী হবেন। শুধু শুধু অর্থ খরচ করে এই নির্বাচনের কোনো মানে হয় না।’ সকাল ১১টার দিকে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের নবগঠিত কমিটির আহ্বায়ক ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু ও সদস্য সচিব হাসান জাফির তুহিনের নেতৃত্বে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা জিয়ার কবরে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, তকদীর হোসেন মো. জসিম, তোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, এম নাজিমউদ্দিন, সৈয়দ মেহেদি আহমেদ রুমী, মাইনুল হোসেন, সাখাওয়াত হোসেন, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেইন, তাঁতীদলের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত