মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বৃষ্টি শেষে নামবে শীত

আপডেট : ০২ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৫৩ এএম

মধ্য বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় একটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়েছে। এর প্রভাবে দেশের বিভিন্ন স্থানে গতকাল রবিবার থেকে বৃষ্টি হচ্ছে। বিশেষ করে চট্টগ্রাম, বরিশালসহ উপকূলীয় এলাকাগুলোতে বৃষ্টি বেশি হচ্ছে। দেশের চারটি প্রধান সমুদ্রবন্দরে তিন নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, লঘুচাপটির ঘনীভূত হওয়ার সম্ভাবনা না থাকলেও বৃষ্টিপ্রবণ অবস্থা থাকতে পারে আজ ও কাল। এছাড়া এ বৃষ্টিপ্রবণ অবস্থার পরেই দেশের উত্তরাঞ্চল থেকে ধীরে ধীরে শীত নামা শুরু করবে।

অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশিদ গত রাতে দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘লঘুচাপের প্রভাবেই বৃষ্টি বেড়েছে। আগামী দুদিন (আজ ও কাল) বৃষ্টির প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে। এরপর থেকে কমে যাবে। দক্ষিণাঞ্চলে তুলনামূলক বেশি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।’ লঘুচাপটি আরও ঘনীভূত হয়ে নিম্নচাপে রূপ নেওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানান তিনি।

শীত প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘বৃষ্টিপ্রবণ অবস্থার মধ্য দিয়েই দেশের উত্তরাঞ্চলে তাপমাত্রা কমতে শুরু করবে। ধীরে ধীরে শীত নামবে। তবে রাজধানীসহ মধ্যাঞ্চলে শীত আসতে আরেকটু সময় লাগবে।’

অধিদপ্তরের এক বিশেষ সতর্কবার্তায় বলা হয়, মধ্য-বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চরণশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে। এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর, সমুদ্রবন্দরসমূহ ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে গভীর সাগরে না গিয়ে উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

গতকাল দেশের অনেক স্থানেই বৃষ্টি হয়েছে। বেশি বৃষ্টি হয়েছে চট্টগ্রাম, বরিশাল, ময়মনসিংহ, সিলেট ও ঢাকা বিভাগে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ৭৬ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড হয়েছে বরিশালের খেপুপাড়ায়। এছাড়া নেত্রকোনায় হয়েছে ৭০ মিলিমিটার বৃষ্টি। একই সময়ে রাজধানীতে ১৫ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এদিন দিনভরই রাজধানীর আকাশ ছিল মেঘাচ্ছন্ন, দেখা মেলেনি সূর্যের। এদিকে বৃষ্টির কারণে গতকাল দেশের তাপমাত্রাও কমেছে। দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা আগের দিনের ৩৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি থেকে কমে গতকাল রাজশাহীতে রেকর্ড হয়েছে ৩৩ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর রাতের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ২০ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

আজ সারা দিনের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; খুলনা, ঢাকা ও ময়মনসিংহের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী ও রংপুরের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি হতে পারে। সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত