সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ত্বকের যত্ন এখনই

আপডেট : ০১ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫২ পিএম

পূজার আর কয়েক দিন বাকি। এখন থেকেই ত্বকের যত্ন নিতে হবে। দেশের আবহাওয়া, লাইফস্টাইল, দূষণ ত্বকে বেশ প্রভাব ফেলে। তাই নিয়মিত পরিচর্যা না করলে ত্বক ভালো থাকে না। ঘরে বসেই ত্বকের যত্ন নিতে পারেন। যা করবেন জানালেন রূপবিশেষজ্ঞ বীথি চৌধুরী

কীভাবে যত্ন নেবেন

সুন্দর মসৃণ ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য মানতে হবে অনেক কিছু।  সঠিক যত্ন, পরিমিত ঘুম, স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস ও জীবন যাপন মেনে চলতে হবে।

 দুইভাবে ত্বক পরিষ্কার করতে হবে। এর ফলে ত্বকের গভীর থেকে ময়লা, দূষণ, ঘাম, অতিরিক্ত তেল  ও মেকআপ দূর হয়ে যায়। এ ক্ষেত্রে ব্যবহার করুন ক্লিনজিং অয়েল আর জেল। শুধুমাত্র ফোম ক্লিনজার দিয়ে ত্বকের গভীর থেকে ময়লা দূর হয় না। অয়েল ক্লিনজার ত্বকের অতিরিক্ত সিবাম আর পলুটেন্ট বের করে আনে আর ফোম বা জেল ক্লিনজার ত্বকের উপরিভাগের ময়লা রিমুভ করে ত্বক পরিষ্কার রাখে। প্রতিদিন বাইরে থেকে এসে ত্বক দুইভাবে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

 এক্সফোলিয়েট ত্বক মসৃণ করে। ত্বকের মরা চামড়া, ব্ল্যাকহেডস না রিমুভ করলে আপনার ত্বক মসৃণ হয়ে উঠবে না আর স্বাভাবিক কোষ পুনর্গঠনও বাধা পাবে। নিউট্রিয়েন্ট রিচ ইনগ্রিডিযেন্স, ন্যাচারাল এক্সট্রাক্ট আর নারিশিং অয়েল সমৃদ্ধ প্রসাধন বেছে নিতে পারেন। সপ্তাহে অন্তত ২ বার এক্সফোলিয়েট করতে হবে।

 একটি রিফ্রেশিং বা হাইড্রেটিং টোনার প্রতিদিনকার ত্বক চর্চায় যোগ করুন। চাইলে রোজ ওয়াটার স্প্রে করতে পারেন, এতে পোর স্বাভাবিক থাকবে পাশাপাশি ত্বকে ইনস্ট্যান্ট ফ্রেশনেস আসবে। ক্লেনজিং করার পর তুলা দিয়ে টোনার ফেইসে অ্যাপ্লাই করে নিন অথবা হাতের সাহায্যেও লাগিয়ে নিতে পারেন। ত্বকের পি এইচ ব্যালেন্স ঠিক রাখতে টোনার যথেষ্ট ভূমিকা রাখে।

 ক্লিনজিং আর টোনিংয়ের পাশাপাশি সিরামও ব্যবহার করতে পারেন। তবে ব্যবহারের নিয়ম জানতে হবে। ফেসওয়াশ > টোনার > ফেসিয়াল সিরাম এই ধারায় ব্যবহার করতে হবে।  বিভিন্ন স্কিন প্রবলেমকে টার্গেট করে সিরামের ভ্যারাইটি আছে যেমন হাইপারপিগমেনটেশন,  ফ্রেকলসের জন্য নিয়াসিনামাইড, আরবুটিন, ভিটামিন সি। আবার পিম্পলের সমস্যা থাকলে স্যালিসিলিক এসিড, ডিহাইড্রেটেড ত্বকের জন্য হায়ালুরোনিক এসিড আর অ্যান্টি-এজিংয়ের জন্য  রেটিনল। বয়স, ত্বকের সমস্যা ও ধরন সবকিছু বুঝে সিরাম করুন।

  শিট মাস্ক ব্যবহার করুন সপ্তাহে ১ বার। শিট মাস্ক মূলত প্যাকেটজাত ফেসিয়াল মাস্ক যার ব্যবহার নিমেষেই আপনার ত্বককে উজ্জ্বলতা দেবে। ক্লান্ত ত্বককে সতেজ করে তুলবে। ত্বকের ময়েশ্চার ধরে রাখবে।

  ত্বকের জন্য ময়েশ্চারাইজার জরুরি। উপকরণ ফেসিয়াল অয়েল, ওভার-নাইট মাস্ক, ডিপ নারিশিং ক্রিম ত্বকের ধরন বুঝে বেছে নিন। ত্বককে মসৃণ করতে ময়েশ্চার লেভেল ঠিক রাখা খুবই প্রয়োজন। তৈলাক্ত ও শুস্ক ত্বকের জন্য আলাদা প্রসাধন বেছে নিন।

   নাকের ওপর ব্ল্যাকহেডস মুখের সৌন্দর্য  নষ্ট করে দেয়। সপ্তাহে ১ দিন মাত্র ১০ থেকে ১৫ মিনিট নাকের ব্ল্যাকহেডস দূর করুন। স্ক্রাবিং ও স্টিম করে অথবা  নোস স্ট্রিপ লাগিয়ে ১০ মিনিট রেখে উঠিয়ে ফেলুন। খুব সহজেই ব্ল্যাকহেডস উঠে যাবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত