শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

করোনার ঝুঁকি অর্ধেক কমাতে পারে ট্যাবলেট

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২১, ০৯:১০ এএম

করোনার প্রতিরোধে মুখে খাওয়ার একটি পরীক্ষামূলক ওষুধে ভালো ফলাফল পাওয়া গেছে বলে দাবি করছেন যুক্তরাষ্ট্রের বিজ্ঞানীরা। ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল বলছে, এটি হাসপাতালে ভর্তি বা মৃত্যুর ঝুঁকি অর্ধেক কমাতে পারে। খবর বিবিসি।

মলনুপিরাভির নামের এই ট্যাবলেট হলো করোনার জন্য সুপারিশ করা প্রথম বড়ি। অ্যান্টিভাইরাল এই পিল রোগীকে দিনে দুই দিন নিতে হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ-প্রস্তুতকারক মার্ক জানায়, পরীক্ষার ফলাফল এত ইতিবাচক যে শিগগিরই ট্রায়াল বন্ধ করার জন্য বলছেন বাইরের পর্যবেক্ষকেরা।

জরুরি ব্যবহারের অনুমতির জন্য সপ্তাহ দু-একের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান আবেদন করবে বলে জানিয়েছে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের চিকিৎসা বিষয় প্রধান উপদেষ্টা ডা. অ্যান্টনি ফাউসি একে ‘খুবই ভালো খবর’ বলে উল্লেখ করেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন এফডিএ তথ্য পর্যালোচনা না করা পর্যন্ত সাবধানতা অবলম্বনের আহ্বান জানিয়েছেন।

নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ যদি অনুমতি দেয়, তবে মলনুপিরাভির হতে যাচ্ছে করোনার জন্য মুখে খাওয়া প্রথম অ্যান্টিভাইরাল ওষুধ।

এই বড়িটি মূলত ইনফ্লুয়েঞ্জার চিকিৎসার জন্য তৈরি করা হয়েছিল। এটি এমনভাবে নকশা করা হয়েছে যাতে ভাইরাসের জেনেটিক কোডে প্রবেশ করে ত্রুটি সম্পর্কে অবহিত হয়, সে ত্রুটিকে শরীরে ছড়িয়ে পড়তে বাধা দেয়।

৭৭৫ জন রোগীর শরীরে ওষুধটি ব্যবহার করে ইতিবাচক ফলাফল পাওয়া হয়েছে। তবে তথ্যটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি আকারে প্রকাশ হলেও এখনো পিয়ার-রিভিউ হয়নি।

বেশির ভাগ কভিড টিকাই ভাইরাসের বাইরের দিকে স্পাইক প্রোটিনেকে লক্ষ্যবস্তু করে তৈরি। সেখানে ভাইরাস নিজের প্রতিরূপ তৈরির জন্য যে এনজাইমকে ব্যবহার করে তাতে আঘাত হানে এ পিল।

ওষুধ-প্রস্তুতকারক মার্ক যুক্তরাজ্যে এমএসডি নামে পরিচিত। তারা বলছে, ভবিষ্যতের পরিবর্তিত নতুন ধরনের করোনার বিপরীতে মলনুপিরাভির একইভাবে যাতে কাজ করে তারা সেই চেষ্টা করবে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত