বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

হারলেই বিপদ ইংল্যান্ডের

আপডেট : ০১ নভেম্বর ২০২২, ১২:৪০ এএম

প্রতিবেশীর উপকার করাটাই তো প্রতিবেশীর কর্তব্য। তাসমান সাগরের ওপারের ‘বড়’ প্রতিবেশী অস্ট্রেলিয়ার দারুণ একটা উপকারই করতে পারে নিউজিল্যান্ড, আজ ইংল্যান্ডকে হারিয়ে দিয়ে। ব্রিসবেনে আজ হেরে গেলেই আসর থেকে ছুটির ঘণ্টা বেজে যাবে ইংল্যান্ডের। তাতে করে নিউজিল্যান্ড তো সেমিফাইনালে যাবেই, পথের কাঁটা দূর হবে অস্ট্রেলিয়ারও। জিতলে টিকে থাকবে ইংল্যান্ডের আশা, সমীকরণে থাকবে অস্ট্রেলিয়াও।

২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপের দুই ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড গত বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল। ড্যারিল মিচেলের দারুণ ব্যাটিংয়ে কিউইরা ম্যাচটা জিতে উঠেছিল ফাইনালে। এবারেও দুটো দলে কমবেশি সেই ক্রিকেটাররাই আছেন। ইংল্যান্ডের নেতৃত্বে বদল এলেও নিউজিল্যান্ডে কেন উইলিয়ামসনই অধিনায়ক। এবং এই মুহূর্তে দলের ব্যাটিং অর্ডারে সবচেয়ে ‘দুর্বল’ জায়গাটা কিউই অধিনায়কের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২৩ বলে ২৩ আর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ১৩ বলে ৮ রান করেছেন শুধু। একই রকম অবস্থা ইংল্যান্ডের অধিনায়ক জস বাটলারেরও। আইপিএলে মনে হচ্ছিল প্রায় বলে বলে ছয় মারতে পারেন বাটলার। সেই তিনি বিশ্বকাপে এসে আফগানদের বিপক্ষে ১৮ আর আইরিশদের বিপক্ষে শূন্য।

দুটো ম্যাচ হয়ে গেছে, এখনো ইংল্যান্ডের কোনো ব্যাটসম্যানের হাফসেঞ্চুরিও নেই। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের গ্লেন ফিলিপস করেছেন শতরান, প্রথম ম্যাচে ডেভন কনওয়েও গিয়েছিলেন খুব কাছাকাছি (৯২*)।

সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে এগিয়ে আছে নিউজিল্যান্ডই। ইংল্যান্ডের টি-২০ দলটা যদিও রোমাঞ্চকর সব ক্রিকেটারে ঠাসা, বিশ্বকাপে এসে ঠিক নিজেদের খুঁজে পাচ্ছেন না তারা। ইংল্যান্ডের সহকারী কোচ পল কলিংউড সংবাদ সম্মেলনে এসে বলেছেন, ‘ইতিহাস বলে যে নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে আমাদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ম্যাচটা না হওয়াতে যেটা হয়েছে, বোলাররা সতেজ আছে। ব্যাটসম্যানরা নেটে নিজেদের ঝালিয়ে নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে। এই মাঠেই আমরা পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছিলাম।’

বেন স্টোকসের দলে জায়গা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় কলিংউডের উত্তর, ‘চাপের মুহূর্তে যে একটা মানুষকে আমি দলে চাইব সে হলো বেন স্টোকস। সে শুধু ম্যাচ জেতানো ইনিংসই খেলে না, চাপের মুখে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলে। সংকটের মুহূর্তে বেন স্টোকসকে দেখলে আশা দেখা যায়, সে শুধু ব্যাট হাতেই না বল হাতেও ম্যাচ ঘুরিয়ে দিতে পারে। এমন মুহূর্তের জন্য বেনকে লাগবেই।’

ব্রিসবেনের মাঠেই বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ম্যাচটি হয়েছিল। সেটি দেখেছেন কি না বা শন উইলিয়ামসের কথায় স্পিন বোলারদের সুবিধার বিষয়টি জানেন কি না এমন প্রশ্নে কলিংউডের উত্তর, ‘না দেখিনি। দেখতে হবে কন্ডিশন কেমন, আমরা আসলে আগে থেকেই কোনো কিছু ভেবে রাখতে চাই না আর এখন পর্যন্ত বল যে খুব ঘুরছে এমনটাও দেখিনি। বরং বলের মুভমেন্টে, সিম আর সুইংয়েই যা হচ্ছে দেখছি।’

নিউজিল্যান্ডের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসেছিলেন লকি ফার্গুসন। এই পেসার বলে দিলেন এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা পেস বোলিং কিউইদেরই, ‘টিম (সাউদি) আর ট্রেন্ট বোল্ট দুর্দান্ত বল করছে। যেখানে বল সুইং করে, সেসব জায়গায় ওদের চেয়ে ভালো কেউ আছে বলে তো মনে হয় না। অন্তত আমার কাছে। ওদের সঙ্গে খেলাটাই খুব দারুণ অভিজ্ঞতা।’

ইংল্যান্ডের ব্যাটিংটা বিশ্বকাপে এখনো জ্বলে না উঠলেও বারুদ কম নয় তাদের। লকি অবশ্য মনে করেন, ওসবে ভয় পেয়ে কাজ নেই কারণ টি-টোয়েন্টিতে সব দলেরই এরকম কিছু না কিছু আছে, ‘টি-২০ খেলার ধরনটাই এমন যে প্রতিটা দলেই শুরুতে ওরকম কিছু বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান থাকে। ইংল্যান্ডও ব্যতিক্রম নয়, নিঃসন্দেহে তারা ব্যাটিং শক্তিতে ওপরের দিকেই আছে আর ওদের ব্যাটিং লাইন-আপটাও লম্বা। ঠান্ডা মাথায় নিজেদের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করাটাই আমাদের লক্ষ্য।’ জিতলেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত, এমন অবস্থায় লকির ভাবনা, ‘বড় ম্যাচ আমাদের জন্য। একটা করে ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। কাল (আজ) জিতলেই পরের ধাপে যেতে পারব যখন যাওয়ার সময় হবে।’

ব্রিসবেনের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বৃষ্টিও আছে। উত্তেজনার বারুদঠাসা এই ম্যাচটায় না আবার প্রকৃতি জল ঢেলে দেয়!

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত