বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

এই দিনে

আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০২২, ১০:৩৫ পিএম

ব্যবসায়ী, সমাজসেবক ও দানবীর রণদাপ্রসাদ সাহা ‘আর পি সাহা’ নামেও পরিচিত।  তিনি ১৮৯৬ সালের ১৬ নভেম্বর ঢাকার অদূরে সাভারের কাছৈড় গ্রামে দরিদ্র একটি পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ১৪ বছর বয়সে আরপি সাহা কলকাতায় যান এবং বিপ্লবী দলে যোগ দেন। কয়েকবার কারাবরণও করেন। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটিশ-বেঙ্গল সেনা মেডিকেল কোরে যোগ দিয়ে ইরাকে যান; সেনাবাহিনীতে কমিশনও লাভ করেন। এরপর কয়লা সরবরাহের ব্যবসা শুরু করেন। চার বছরেই তিনি কলকাতায় বিশিষ্ট কয়লা ব্যবসায়ী হিসেবে প্রতিষ্ঠা পান। ১৯৩৮ সালে নিজ গ্রাম মির্জাপুরে তিনি ২০ শয্যার হাসপাতাল এবং ২০০ ছাত্রীর থাকা ও পড়াশোনার উপযোগী আবাসিক স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর তিনি গরিবদের কল্যাণে ‘কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অব বেঙ্গল’ নামে একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান নিবন্ধন করান। মায়ের স্মরণে মির্জাপুরে ‘কুমুদিনী মহিলা কলেজ’ ও বাবার নামে ‘দেবেন্দ্র কলেজ’ স্থাপন করেন।  মির্জাপুরে ভারতেশ্বরী হোমস প্রতিষ্ঠা তার অন্যতম কীর্তি। স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে ১৯৭১ সালের ১৭ মে তিনি পাকিস্তানি সেনাদের হাতে শহীদ হন। ১৯৭৮ সালে সরকার তাকে এবং ১৯৮৪ সালে তার প্রতিষ্ঠিত কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টকে সমাজসেবায় অবদানের জন্য স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার দেয়।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত