মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বন্যার ধাক্কায় সিলেট পিছিয়ে

আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১২:৩৮ এএম

প্রকাশিত হয়েছে ২০২২ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল। এবার সারা দেশে পাসের গড় হার ৮৭ দশমিক ৪৪ শতাংশ, যা আগের বছরের তুলনায় কমেছে ৬ দশমিক ১৪ শতাংশ। গত বছর পাসের হার ছিল ৯৩ দশমিক ৫৮ শতাংশ। তবে একক বোর্ড হিসেবে পাসের হারের সবচেয়ে অবনতি হয়েছে সিলেট বোর্ডের। বোর্ডটিতে গতবারের চেয়ে পাসের হার ১৮ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৭৮ দশমিক ৮২ শতাংশে। গত বছর সিলেট বোর্ডে পাসের হার ছিল ৯৬ দশমিক ৭৮ শতাংশ। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এ-বছর ওই অঞ্চলে ভয়াবহ বন্যার কারণে বইপত্র নষ্ট হওয়া, দীর্ঘ সময় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকার প্রভাব পড়েছে ফলাফলে। 

এদিকে বিভিন্ন বোর্ডের ফলাফল বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, বরাবরের মতো এবারও ছেলেদের তুলনায় ভালো ফল করেছে মেয়েরা। পাসের হার ও জিপিএ ৫ উভয় ক্ষেত্রেই এগিয়ে আছে তারা। কোনো কোনো বোর্ডে ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা জিপিএ ৫ পেয়েছে প্রায় দ্বিগুণ। 

দেশ রূপান্তরের নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্যে বিস্তারিত-

সিলেট থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক জানিয়েছেন, এবার সিলেট শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার কমলেও বেড়েছে জিপিএ ৫। গতবারের চেয়ে পাসের হার ১৮ শতাংশ কমেছে। তবে জিপিএ ৫-এর সংখ্যা বেড়েছে ২ হাজার ৭৩১টি। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, গত জুন মাসে সিলেট অঞ্চলের ভয়াবহ বন্যা পাসের হারে প্রভাব ফেলেছে। গতকাল সোমবার সিলেট শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক অরুণ চন্দ্র পাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘এবার পরীক্ষার আগে সিলেট অঞ্চলে ভয়াবহ বন্যা হয়েছিল। বন্যায় অনেক পরীক্ষার্থীর বই, খাতা ও নোট হারিয়ে যায়। তারা ঠিকমতো প্রস্তুতি নিতে পারেনি। বন্যার পর বই দেওয়া হলেও নোট বই দেওয়া যায়নি। বন্যার কারণে পরীক্ষাও পিছিয়েছে। এ কারণেই পাসের হার কমেছে। এ ছাড়া গত বছর গণিত ও ইংরেজি বিষয়ে পরীক্ষা ছিল না। কেবল তিনটি বিষয়ে পরীক্ষা হয়েছিল। এবার গণিত ও ইংরেজি পরীক্ষা হয়েছে। ফলাফলে এর প্রভাবও পড়েছে।’

এ বছর সিলেট শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ১ লাখ ১৬ হাজার ৪৯০ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। এদের মধ্যে ৪৯ হাজার ৮৭ জন ছেলে ও ৬৬ হাজার ৩০৪ জন মেয়ে পরীক্ষার্থী পাস করেছে। বোর্ডে এবার ৭ হাজার ৫৬৫ জন জিপিএ ৫ পেয়েছে। এর মধ্যে ৩ হাজার ২৫৪ জন ছেলে ও ৪ হাজার ৩১১ জন মেয়ে।

রাজশাহী থেকে নিজস্ব প্রতিবেদক জানিয়েছেন, এ-বছর বোর্ডে পাসের হার ৮৫ দশমিক ৮৮ শতাংশ। যা গত সাত বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে এ-বছর জিপিএ ৫ পেয়েছে ৪২ হাজার ৫১৭ জন; যা সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। জিপিএ ৫ এবং পাসের হার দুই পরিসংখ্যানেই মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে। মেয়েদের পাসের হার ৮৬ দশমিক ১৭ ভাগ আর ছেলেদের পাসের হার ৮৫ দশমিক ৬৯ ভাগ।

চট্টগ্রাম ব্যুরো থেকে পাঠানো তথ্যে দেখা যাচ্ছে, চট্টগ্রামে কমেছে পাসের হার। গত বছরের এসএসসি পরীক্ষায় ৯১ দশমিক ১২ শতাংশ পরীক্ষার্থী পাস করলেও এবার তা কমে হয়েছে ৮৭ দশমিক ৫৩ শতাংশ। তবে বেড়েছে জিপিএ ৫ । গত বছর যেখানে ১২ হাজার ৭৯১ জন জিপিএ ৫ পেয়েছিল এবার তা বেড়ে হয়েছে ১৮ হাজার ৬৬৪। এবার ১ লাখ ৫০ হাজার ১১২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ১ লাখ ৩০ হাজার ১৩ জন। ছেলেদের পাসের হার ৮৭ দশমিক ৩৩ শতাংশ ও মেয়েদের পাসের হার ৮৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ।

বরিশাল প্রতিনিধি জানিয়েছেন, বরিশাল শিক্ষাবোর্ডে পাসের হার ৮৯ দশমিক ৬১ শতাংশ। গত বছর বোর্ডে পাসের হার ছিল ৯০ দশমিক ১৯ শতাংশ। শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অরুণ কুমার গাইন জানান, এ বছর পরীক্ষায় অংশ নেয় ৯৪ হাজার ৮৭১ জন। তাদের মধ্যে ৪০ হাজার ৪৩৫ জন ছাত্র এবং ৪৪ হাজার ৫৭৯ জন ছাত্রী পাস করেছে। জিপিএ ৫ও বেশি পেয়েছে মেয়েরা।

কুমিল্লা থেকে আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক জানিয়েছেন, কুমিল্লা বোর্ডে এবার পাসের হার ৯১ দশমিক ২৮ শতাংশ। জিপিএ ৫ পেয়েছে ১৯ হাজার ৯৯৮ জন তাদের মধ্যে ১২ হাজার ১২১ জন মেয়ে আর ছেলে ৭ হাজার ৮৭৭ জন। ছেলে শিক্ষার্থী পাস করেছে ৭৩ হাজার ৯৯৩ জন। মেয়ে শিক্ষার্থী পাস করেছেন ৯৬ লাখ ৪৮১ জন।

যশোর প্রতিনিধি জানান, পাসের হারে দেশসেরা সাফল্য অর্জন করেছে যশোর বোর্ড। পাশাপাশি জিপিএ ৫ প্রাপ্তিও গত বছরের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। এ বছর এই বোর্ডে পাসের হার ৯৫ দশমিক ১৭ শতাংশ এবং জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩০ হাজার ৮৯২ জন শিক্ষার্থী। গত বছর এই বোর্ডে পাসের হার ছিল ৯৩ দশমিক ০৯ শতাংশ এবং জিপিএ ৫ পেয়েছিল ১৬ হাজার ৪৬১ জন শিক্ষার্থী।

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি জানান, এবার এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হার শতকরা ৮৯ দশমিক ০২ শতাংশ। এক লাখ ৯ হাজার ৯৫২ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ৯৭ হাজার ৮৮২ জন। এরমধ্যে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১৫ হাজার ২১৬ জন। এবারও জিপিএ ৫ প্রাপ্তিতে ছেলেদের চেয়ে মেয়েরা এগিয়ে রয়েছে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত