বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

খন্দকার মোশাররফ বললেন

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য হাসির ব্যাপার

আপডেট : ২৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৩২ এএম

‘আপনারা ভোট চোরদের ভোট দেবেন না’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য হাসির ব্যাপার। যারা ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় আছে তারা বলছে ভোট চোরদের ভোট দেবেন না। ভোট চুরি করে কারা ক্ষমতায় আছে তা দেশের ১৭ কোটি জনগণের পাশাপাশি বিশ^বাসী জানে।’ গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী (শেখ হাসিনা) চট্টগ্রামের জনসভায় বলেছেন আপনারা চোরকে ভোট দিয়েন না। এর পরেই তিনি আবার নৌকায় ভোট চেয়েছেন। একই জনসভায় তিনি স্ববিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন। শুধু এ দেশের মানুষ নয়, আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত আওয়ামী লীগ ভোট চোর। দেশের ১৭ কোটি মানুষ সবাই জানে। এমনকি আওয়ামী লীগের লোকেরাও ২০১৮, ২০১৪ সালে ভোট দিতে পারেনি। এ সরকারকে ক্ষমতায় রেখে দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে না, অর্থনীতি পুনরুদ্ধার হবে না, সে জন্য দেশের জনগণ এ সরকারের বিদায় চায়।’

তিনি বলেন, ‘১৪ বছর ধরে যারা গায়ের জোরে ক্ষমতায় তারা নিজেরাই নিজেদের ভোট চোর হিসেবে পরিচিত করেছে। আমরাও গত ১৪ বছর ধরে বলছি দেশে গণতন্ত্র নেই। মানুষের ভোটের অধিকার নেই। দেশে যত অরাজকতা তার কারণ হলো দেশে গণতন্ত্র না থাকা। আজকে যারা ক্ষমতায় তারা ১৯৭২-৭৫ সালে রক্ষী বাহিনী গঠন করে বিচারবহির্ভূত হত্যাকা- করেছিল। এখনো হত্যাকা- করছে।’

‘ভোট চোরদের মানুষ পছন্দ করে না’ গত ২৪ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের জাতীয় কাউন্সিলে প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সাবেক এ মন্ত্রী বলেন, ‘ভোট চোরকে ভোট দেবেন না এটা বললে নৌকাকে ভোট দেবেন না সেটাই বোঝায়। অবশ্যই মানুষ পছন্দ করে না। ভোট চোরদের মানুষ পছন্দ করে না বলেই এ দেশের সব জনগণ আজকে মাঠে নেমেছে সরকারের পতনের জন্য। এ জন্য আমরা যে ১০টি বিভাগীয় সমাবেশ করেছি, এত বাধার পরও মানুষ সমাবেশে যোগ দিয়েছে।’

জাসাসের যুগ্ম আহ্বায়ক লিয়াকত আলীর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব জাকির হোসেন রোকনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লা বুলু, ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স ও জাসাস নেতা আশরাফ উদ্দিন উজ্জ্বল।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত