রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

এবার অর্ধেক বই দিয়ে উৎসব

আপডেট : ৩১ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:১৮ এএম

বছরের প্রথম দিনেই শিক্ষার্থীরা মেতে উঠে নতুন বইয়ের উৎসবে। এ দিনে বই হাতে উল্লাসে মেতে ওঠার অপেক্ষায় রয়েছে শিক্ষার্থীরা। কিন্তু খুলনায় চাহিদার বিপরীতে আশানুরূপ নতুন বই এখনো পৌঁছায়নি। গত বৃহস্পতিবার পর্যন্ত খুলনায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩০ শতাংশ এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫০ শতাংশ বই এসে পৌঁছেছে।

খুলনা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তৌহিদুল ইসলাম বলেন, নতুন বছরের শুরুতেই শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হবে। আগামী রবিবার সকাল ১০টায় খুলনা সিঅ্যান্ডবি কলোনির মডেল স্কুলে বই উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। বই উৎসবকে কেন্দ্র করে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করেছে।

তিনি জানান, খুলনায় ১ হাজার ৫৭১টি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এ বছর খুলনায় বইয়ের চাহিদা রয়েছে ১০ লাখ ৬৫ হাজার ২৩১টি। বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত ৩ লাখ ৪৮ হাজার ৩৪১টি বই এসেছে। বাকি বইও চলে আসবে। চাহিদার বিপরীতে প্রায় ৩০ শতাংশ বই এসেছে।

খুলনা জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, খুলনায় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৪২০টি ও মাদ্রাসা ১৩৬টি। ২৯ লাখ বইয়ের চাহিদা ছিল, প্রায় অর্ধেক বই পেয়েছি।

অপরদিকে, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় চাহিদার প্রায় অর্ধেক বই এখনো আসেনি। গতকাল শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত প্রাথমিক স্তরের কেবল শিশু শ্রেণির শতভাগ বই এসেছে। অন্যান্য শ্রেণির কোনো বই এসে পৌঁছেনি। মাধ্যমিক স্তরে গড়ে ৬০ শতাংশ বই এসেছে। ইবতেদায়ি মাদ্রাসার ১ম ও ২য় শ্রেণির কোনো বই এখনো আসেনি। তবে ৩য়, ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণির শতভাগ বই এসেছে। ফলে নতুন শিক্ষাবছরের প্রথম দিনে সব শিক্ষার্থীর সব বই হাতে পাওয়া সম্ভব হবে না।

উপজেলা প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, আখাউড়ায় ১৩১টি প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং কিন্ডারগার্টেন স্কুলের জন্য প্রায় ১ লাখ ২৭ হাজার বই প্রয়োজন।

আখাউড়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা লুৎফুর রহমান বলেন, আখাউড়ায় শুধু শিশু শ্রেণির সাড়ে ৩ হাজার বই এসেছে। শুক্রবার (গতকাল) কিছু বই আসার সম্ভাবনা রয়েছে।

বই সংকটে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একযোগে বই উৎসব হবে কি না জানতে চাইলে আখাউড়া মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা শওকত আকবর খান বলেন, চাহিদার ৫৬ শতাংশ বই পেয়েছি আমরা। আশা করি ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে আরও বই পাব। আখাউড়ায়ও বই উৎসব হবে। হয়তো প্রথম দিন সবাইকে সব বই দেওয়া যাবে না। পরে বই এলে দেওয়া হবে।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত