বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

সর্বস্তরে বাংলা প্রতিষ্ঠার দাবি

আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২:০৩ এএম

ভাষাশহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় সারা দেশে পালিত হয়েছে জাতীয় শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। গতকাল মঙ্গলবার দিবসটি উপলক্ষে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সরকারি-বেসরকারি অফিস। শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এদিন জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হয়েছে। এ ছাড়া কর্মসূচির মধ্যে ছিল শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, প্রভাতফেরি, চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা এবং দোয়া ও মোনাজাত। আলোচনা সভায় বক্তারা সর্বস্তরে বাংলা ভাষার প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছেন। প্রযুক্তির সঙ্গে মিলিয়ে ভাষাকে এগিয়ে নেওয়ার কথা বলেছেন। পাশাপাশি রাজনৈতিকভাবে বাংলা ভাষার ওপর আগ্রাসনের চেষ্টা হলে তার বিরুদ্ধে সম্মিলিত প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন। চট্টগ্রাম ব্যুরো, ঢাকার বাইরের নিজস্ব প্রতিবেদক, প্রতিনিধি ও সংবাদদাতাদের পাঠানো প্রতিবেদন :

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রাম মিউনিসিপ্যাল মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠের শহীদ মিনারে একুশের প্রথম প্রহর রাত ১২টা ১ মিনিট থেকেই ফুল হাতে মানুষের ঢল নামে। এদিন সবার আগে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী। এরপর আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার আমিনুর রহমান, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণপদ রায়, জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মো. ফখরুদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগ ও বিএনপি এবং তাদের অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

গাজীপুর : প্রথম প্রহরে গাজীপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন গাজীপুর জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমান। পরে আওয়ামী লীগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তর ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আলোচনা সভা হয় এবং দুপুরে নগরীর নলজানী এলাকায় ভাষাশহীদ বরকতের মায়ের কবর জিয়ারত, দোয়া ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এ ছাড়া দিবসটি উপলক্ষে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট, কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয় ও ডুয়েট পৃথকভাবে কর্মসূচি পালন করে।

রাজশাহী : প্রথম প্রহরে রাজশাহী কলেজ শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ। মহানগর বিএনপির উদ্যোগে ভুবনমোহন পার্কের শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এরপর একে একে ফুল দিয়ে ভাষাশহীদদের শ্রদ্ধা জানান বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।

খুলনা : প্রথম প্রহরে নগরীর শহীদ হাদিস পার্কের শহীদ মিনারে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ও মহানগর কমান্ড, কেসিসির মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক, বিভাগীয় কমিশনার মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরী, কেএমপির পুলিশ কমিশনার মাসুদুর রহমান ভূঞা, জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সকালে নগর ভবনে সিটি করপোরেশনের আয়োজনে শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

ঠাকুরগাঁও : প্রথম প্রহরে ঠাকুরগাঁও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন। এরপর পর্যায়ক্রমে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড ইউনিট, জেলা ও পৌর আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক ও সামাজিক সংগঠন ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায়।

সিরাজগঞ্জ : মঙ্গলবার দিনব্যাপী জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এর মধ্যে ছিল প্রভাতফেরি, জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা, শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান ম-ল।

ঝিনাইদহ : প্রথম প্রহরে জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য খালেদা খানম, জেলা প্রশাসক প্রশাসক মনিরা বেগম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রথীন্দ্রনাথ রায়। পরে পুলিশ সুপার আশিকুর রহমান ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদসহ সরকারি, বেসরকারি নানা সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। সকালে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বর থেকে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে প্রভাতফেরির আয়োজন করা হয়।

জামালপুর : প্রথম প্রহরে জামালপুর পৌর শহরের দয়াময়ী মোড়ে শেখ হাসিনা সাংস্কৃতিক পল্লীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি, জামালপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোজাফফর হোসেন, জেলা প্রশাসক শ্রাবস্তী রায়, পুলিশ সুপার নাছির উদ্দিন আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ। পরে সকালে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।

টাঙ্গাইল : সকালে টাঙ্গাইল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ছানোয়ার হোসেন এমপি, জোয়াহের ইসলাম জোয়াহের এমপি, তানভীর হাসান ছোট মনির এমপি, খান আহমেদ শুভ এমপি, জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার প্রমুখ। পরে আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সর্বস্তরের জনসাধারণ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে।

নীলফামারী : প্রথম প্রহরে জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক পঙ্কজ ঘোষ। এরপর পুলিশ প্রশাসন, বিচার বিভাগ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে। এ ছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চিত্রাঙ্কন, বাংলায় সুন্দর হাতের লেখা, ভাষার গান, দেশাত্মবোধক গান ও রচনা লিখন প্রতিযোগিতা হয়।

মুন্সীগঞ্জ : প্রথম প্রহরে শহরের পুরাতন কাচারী এলাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন মুন্সীগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস, জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান আল-মামুন। এ ছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নানাভাবে দিবসটি পালিত হয়।

মৌলভীবাজার : মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় সংসদ সদস্য সুলতান মোহাম্মদ মনসুরের পক্ষে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। দুপুরে প্রতিবন্ধী ও সুবিধাবঞ্চিতসহ তিন শতাধিক শিক্ষার্থীকে নিয়ে সুন্দর হাতের লেখা, চিত্রাঙ্কন ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতার আয়োজন হয়।

সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) : ভাষা আন্দোলনের প্রথম শহীদ রফিক উদ্দিন আহমেদের বাড়ি মানিকগঞ্জের সিংগাইরে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালিত হয়েছে। সকালে উপজেলার বলধারা ইউনিয়নে রফিকনগরে শহীদ রফিকের নিজ বাড়িতে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট গোলাম মহিউদ্দিন, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আবদুল লতিফ ও জেলা পুলিশ সুপার গোলাম আজাদ খান।

মাভাবিপ্রবি : মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (মাভাবিপ্রবি) শহীদ মিনারে প্রথম প্রহরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন, প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক এআরএম সোলাইমান, ট্রেজারার অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদ, হল, শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন, কর্মচারী সমিতি ও ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় : প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সৌমিত্র শেখর। এরপর বিভিন্ন সংগঠন, বিভাগ ও দপ্তরের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। এরপর সকাল ১১টায় কালো ব্যাজ ধারণ শেষে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে এক আলোচনা সভায় মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য দেন শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরীর ছেলে আসিফ মুনীর।

পবিপ্রবি : পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পবিপ্রবি) কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রথম প্রহরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত। সকাল সাড়ে ৭টায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ করা হয়। পরে প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে প্রভাতফেরি ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত