রোববার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

চট্টগ্রামে মোটরসাইকেল চোর চক্রের মূলহোতাসহ গ্রেপ্তার ৫

আপডেট : ২৬ মার্চ ২০২৩, ০২:৫৯ পিএম

চট্টগ্রামে মোটরসাইকেলসহ চোর চক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার পুলিশ। এসময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ২৪টি চোরাই মোটরসাইকেল।

শনিবার (২৫ মার্চ) সন্দ্বীপ থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে কোতোয়ালি থানা পুলিশ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ এলাকার ধনঞ্জয় ধরের ছেলে মিঠুন ধর (২৯), একই এলাকার নুরুল আব্বাসের ছেলে মো. খোরশেদ আলম (২৯), সন্দ্বীপ উপজেলার কালাপানিয়া এলাকার নুরুল আলমের ছেলে মো. রিপন (৪০), একই এলাকার মোহাম্মদ শাহজাহানের ছেলে মো. শাহেদ (২৬), গাছুয়া গ্রামের আব্দুল বাতেনের ছেলে মো. বাবর ওরফে বাবুল (৩৫)।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদুল কবীর জানান, গত ১৬ মার্চ মধ্যরাতে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে ভবনের সামনে থেকে চুরি হয় চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক শামসুল ইসলামের মোটরসাইকেল। এ ঘটনায় পরের দিন থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী সাংবাদিক। এর পর সিএমপির উপকমিশনার (দক্ষিণ) মোস্তাফিজুর রহমান এবং অতিরিক্ত উপকমিশনার নোবেল চাকমার নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধানে চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধারে মাঠে নামে পুলিশের একাধিক টিম।

শনিবার (২৫ মার্চ) রাত সাড়ে আটটার দিকে চট্টগ্রাম মহানগরের পুরাতন রেলওয়ে স্টেশন এলাকা থেকে মিঠুন ধর ও মো. বাবর ওরফে বাবুলকে একটি চোরাই মোটরসাইকেলসহ আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ কর্মকর্তাদের তারা জানায়, তাদের সহযোগী মো. শাহেদ, মো. রিপন, মো. খোরশেদ আলম, মো. দিদার হোসেন, মো. নজরুল ইসলাম প্রকাশ তাদেরকে সহায়তায় চট্টগ্রাম শহর ও আশপাশ এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চুরি করে সন্দ্বীপ ও কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় বেচাকেনা করে আসছে। এ যাবত তারা শতাধিক মোটরসাইকেল চুরি করেছে।

এরপর মিঠুন ধর ও বাবরের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সন্দ্বীপ থানা এলাকায় শনিবার রাতে অভিযান চালিয়ে মো. শাহেদ ও মো. রিপনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ২৩টি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করে পুলিশ।অভিযান চলাকালে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয় দিদার হোসেন ও নজরুল ইসলাম তাহের।

পরবর্তীতে মিঠুন ধরের তথ্যের ভিত্তিতে মো. খোরশেদ আলমকে নগরের ব্রিজঘাট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃত সবার বিরুদ্ধে মোটরসাইকেল চুরির অভিযোগে চট্টগ্রামের নগরের কোতোয়ালিসহ জেলার বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি জাহিদুল কবীর।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত