সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

জামায়াতের সঙ্গে দূরত্ব কমাচ্ছে বিএনপি

আপডেট : ৩১ মার্চ ২০২৪, ০২:৫২ এএম

দীর্ঘ ৮ বছর পর জামায়াতে ইসলামীর ইফতার পার্টিতে যোগ দিয়েছেন বিএনপির নেতারা। ২০১৫ সালে হোটেল সোনারগাঁওয়ে জামায়াতের ইফতারে গিয়েছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এরপর থেকে সেভাবে বড় আকারে ইফতার পার্টিতে দেখা যায়নি দলটিকে।

এদিকে ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে দীর্ঘদিনের মিত্র ও জোট সঙ্গী জামায়াতের সঙ্গে দূরত্ব বাড়ে বিএনপির। বিভিন্ন সময়ে এই দুই দলের শীর্ষ নেতারা পারস্পরিক বাকযুদ্ধেও জড়ান। একপর্যায়ে জামায়াতকে নিয়ে গঠিত ২০-দলীয় জোট ভেঙে দেয় বিএনপি। এরপর থেকে দল দুটির নেতাদের আনুষ্ঠানিকভাবে কাছাকাছি হতে দেখা যায়নি। গত বছরের রমজানে বিএনপির ইফতারে জামায়াতকে দাওয়াত দেওয়া হয়নি। তবে দীর্ঘদিন পর সেই দূরত্ব দূর হচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে।

গতকাল শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে জামায়াত আয়োজিত ইফতারে যোগ দেয় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাসহ দলের একটি প্রতিনিধিদল।

 এর আগে ২১ মার্চ রাজধানীর ইস্কাটনের লেডিস ক্লাবে বিএনপি আয়োজিত ইফতারেও যোগ দিয়েছিলেন জামায়াতের আমির ডা. শফিকুর রহমানসহ চার শীর্ষ নেতা। সেখানে লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তারেক রহমান ও অনুষ্ঠানে জামায়াতের আমির ডা. শফিকুর রহমান বক্তব্য দেন। গতকাল জামায়াতের ইফতারে যোগ দিলেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা। অনুষ্ঠানে জামায়াত নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলটির সেক্রেটারি জেনারেল মিয়া গোলাম পরওয়ার, সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা আবদুল হালিম, নায়েবে আমির সৈয়দ আবদুল্লাহ মোহাম্মদ তাহেরসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

গতকাল হোটেল সোনারগাঁও প্যানপ্যাসিফিকের বলরুমে ইফতারে একই টেবিলে বসে ইফতার করেন জামায়াতে ইসলামীর আমির ডা. শফিকুর রহমান, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্র্টির চেয়ারম্যান অলি আহমেদ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, মির্জা আব্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু।

বিএনপির প্রতিনিধিদলের অন্যরা হলেন ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, জয়নাল আবদিন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, মাসুদ আহমেদ তালুকদার, যুগ্ম মহাসচিব মজিবুর রহমান সারওয়ার, মাহবুব উদ্দিন খোকন, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, আইনবিষয়ক সম্পাদক কায়সার কামাল, দলটির মিডিয়া সেলের জহির উদ্দিন স্বপন ও শায়রুল কবির খান।

এ ছাড়া এলডিপির চেয়ারম্যান অলি আহমেদ, লেবার পার্টির মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, জাগপার খন্দকার লুৎফর রহমান, এনপিপির মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা, বিএলডিপির শাহাদাত হোসেন সেলিম, বিকল্পধারা বাংলাদেশের অধ্যাপক নুরুল আমিন ব্যাপারীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা ও পেশাজীবীরা।

ইফতারের আগে দেশের বর্তমান অবস্থা ও সরকারের দমনপীড়নের বিষয়টি তুলে ধরে এর বিরুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানান জামায়াতের আমির।

কারামুক্ত ২০০ নেতাকে সংবর্ধনা দিল কৃষক দল : সরকারবিরোধী আন্দোলনে গ্রেপ্তার হওয়া ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সদ্য কারামুক্ত দুই শতাধিক নেতাকর্মীকে ফুলের মালা পরিয়ে সংবর্ধনা দিয়েছে জাতীয়তাবাদী কৃষক দল। গতকাল শনিবার বিকেলে রাজধানীর ইস্কাটনের লেডিস ক্লাবে কৃষক দল এই সংবর্ধনা দেয়। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনে কৃষক দলের কারামুক্ত নেতাকর্মীদের সম্মানে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি যোগ দিয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

ইফতার-পূর্ব সংক্ষিপ্ত আলোচনায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে ৭ জানুয়ারি একতরফাভাবে ডামি, আসন ভাগাভাগির নির্বাচন করেছে। কিন্তু বিএনপির আহ্বানে সাড়া দিয়ে জনগণ সেই নির্বাচন বর্জন করেছে। এর মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ সরকারের রাজনৈতিকভাবে পরাজয় ও মৃত্যু ঘটেছে।’

কৃষক দলের সভাপতি হাসান জাফির তুহিনের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুলের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ আযম খান, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু এবং অন্যদের মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত