শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

‘সরকার জিয়ার নাম মুছে ফেলার চক্রান্ত করছে’

আপডেট : ০১ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৩১ এএম

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘জিয়াউর রহমানের নাম মুছে ফেলার চক্রান্ত চলছে। এ চক্রান্ত মূলত জিয়াউর রহমান সম্পর্কে নতুন প্রজন্মকে ভুল ধারণা দেওয়ার জন্য। যে ব্যক্তির ঘোষণার মধ্য দিয়ে দেশ স্বাধীন হলো, যিনি রণাঙ্গনে যুদ্ধ করলেন, সে মানুষটিকে এখন পাকিস্তানের অনুচর হিসেবে বলার অপচেষ্টা করা হচ্ছে। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। দাঁড়ানোর জন্য রাজনৈতিক দল আছে, বিএনপি আছে। জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের দায়িত্ব হবে তথ্যভিত্তিক উপাত্ত তুলে ধরে এ চক্রান্তের জবাব দেওয়া এবং জিয়াউর রহমানের অবদান সম্পর্কে মানুষকে জানানো।’

গতকাল রবিবার ইস্কাটন গার্ডেনে লেডিস ক্লাবে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন আয়োজিত ইফতার মাহফিলপূর্ব আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন। ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট তারেক রহমান লন্ডন থেকে ভার্চুয়ারি যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন।

জিয়াউর রহমানের কাজগুলোর বিভিন্ন দিক নিয়ে গবেষণার মাধ্যমে বুকলেট, বই তৈরি করে নতুন প্রজন্মের কাছে ছড়িয়ে দেওয়ার পরামর্শ দেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য সারাটা জীবন উৎসর্গ করেছেন। এখনো বন্দি অবস্থায় মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করছেন। তার কথা আমরা স্মরণ করব এবং আল্লাহর কাছে তার সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু কামনা করব। একই সঙ্গে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সুস্থতা কামনা করছি।’

পরে মহাসচিব জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের সদস্যসহ রাজনৈতিক, পেশাজীবী নেতাদের নিয়ে ইফতার করেন। ফাউন্ডেশনের সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলালের সঞ্চালনায় ইফতারপূর্ব আলোচনায় বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, পেশাজীবী নেতাদের মধ্যে অধ্যাপক সদরুল আমিন, অধ্যাপক মোর্শেদ হাসান খান, জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ফরহাদ হালিম ডোনার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

গতকাল রবিবার মিথ্যা, বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় আদালতে বিএনপি যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলের জামিন নামঞ্জুর এবং তাকে কারাগারে পাঠানোর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে দেওয়া এক বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এক সর্বগ্রাসী অরাজকতা দেশকে আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধে ফেলেছে। দেশে এক ব্যক্তির ইচ্ছা-অনিচ্ছা ও নব্য বাকশালী শাসন কায়েম করতে শহর থেকে গ্রাম সবখানে মানুষের মধ্যে ভীতি ও আতঙ্ক ছড়ানো হচ্ছে।’

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত