সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

কেজরিওয়ালের জেলজীবন আরও দীর্ঘ

আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৩৮ এএম

ভারতের দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল সহসাই মুক্তি পাচ্ছেন না। তাকে নতুন করে ১৪ দিনের জেল হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আম আদমি পার্টির (আপ) প্রধানকে আবগারি মামলায় এই হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে দিল্লির রাউস অ্যাভিনিউ আদালত। অর্থাৎ আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত তিহার জেলই হচ্ছে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর ঠিকানা।

দিল্লির তিহারের দুই নম্বর সেলে অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে বন্দি করে রাখা হয়েছে। তার পাশের সেলেই রয়েছেন আবগারি মামলার আরেক আসামি দিল্লির মন্ত্রিসভার সাবেক সদস্য মণীশ সিসৌদিয়া। তিহার জেলের পাঁচ নম্বর সেলে রয়েছেন আপ থেকে নির্বাচিত রাজ্যসভার এমপি সঞ্জয় সিংহ।

আবগারি দুর্নীতি মামলায় গত ২১ মার্চ কেজরিওয়ালকে গ্রেপ্তার করে কেন্দ্রীয় আর্থিক অনিয়ম তদন্তকারী সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। এই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে মোট ৯ বার সমন পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু তিনি প্রতিবারই হাজিরা এড়িয়েছেন। পরে ২১ মার্চ শেষমেশ তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায় ইডি। গতকাল সোমবার ইডি হেফাজতের মেয়াদ শেষ হওয়ার পরই দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীকে আদালতে হাজির করানো হয়। আদালতই ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয়। তার মুক্তির ব্যাপারটি এখন নিশ্চিত করে বলার জায়গায় নেই।

গত রবিবার দিল্লির রামলীলা ময়দানে বিজেপিবিরোধী দলগুলো একত্র হয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদ জানায়। আপ, কংগ্রেস, তৃণমূল কংগ্রেস, সিপিআইএম, সমাজবাদী পার্টিসহ বিভিন্ন দলের নেতারা আসন্ন লোকসভা ভোটে সমানভাবে সুযোগ-সুবিধা দাবি করেন। গণতন্ত্র রক্ষার দাবিতে সুর মেলান তারা। এর পরদিন গতকাল কেজরিওয়ালকে আদালতে তোলা হলে তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যা করছেন তা দেশের জন্য ভালো কিছু নয়।’

এদিকে গ্রেপ্তারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে কেজরিওয়াল যে আর্জি হাইকোর্টে পেশ করেছেন, তার শুনানি হবে আগামীকাল বুধবার। কেজরিওয়ালকে গ্রেপ্তার করতে গিয়ে তার মৌলিক অধিকার লঙ্ঘন করেছে কি না ইডি, সেই প্রশ্নের জবাব চেয়েছে ইডি। এদিকে জেল থেকে সরকারের দায়িত্ব পালনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেননি তিনি।

এদিকে ক্রমেই দীর্ঘ হতে থাকা কারাবাসের মধ্যে কেজরিওয়াল কারাগারে কিছু বাড়তি সুবিধা পাবেন। তার সেলে টিভির ব্যবস্থা করা থাকছে। সংবাদ, বিনোদন এবং খেলাধুলাসহ ১৮-২০টি চ্যানেল দেখার অনুমতি দেওয়া হয়েছে কেজরিওয়ালকে। তা ছাড়া তার শারীরিক পরিস্থিতির ওপর নজর রাখতে চিকিৎসক থাকবেন।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত