শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

পুরনো গাড়ির ব্যবসা

আপডেট : ০২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৪৬ এএম

দেশে বছরে প্রায় ২ লাখ ব্যবহৃত গাড়ি ক্রয় ও বিক্রি হয়। সাধারণত বাজারে ৮ লাখ থেকে ২৫ লাখ টাকা দামের গাড়ির চাহিদাই বেশি বাজারে। দেশে সব মিলিয়ে বছরে কমবেশি ১৫ হাজার কোটি টাকার ব্যবহৃত গাড়ি বেচাকেনা হয়। দেশে এখন মানুষের ক্রয়ক্ষমতা যেমন বাড়ছে, তেমনি যোগাযোগ অবকাঠামোরও উন্নয়ন ঘটেছে। সেই সঙ্গে ব্যক্তিগত গাড়ির চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। যাদের বেশি দাম দিয়ে নতুন গাড়ি কেনার সুযোগ নেই, তারা সামর্থ্যরে মধ্যে পুরনো গাড়ি কিনেই নিজেদের প্রয়োজন মেটাচ্ছেন। এই ধারাবাহিকতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ফলে দেশের অভ্যন্তরে ব্যবহৃত তথা পুরনো গাড়ির বাজারও বড় হচ্ছে। যদিও ব্যবসায়ে লাভ-ক্ষতি খুবই স্বাভাবিক বিষয়, কিন্তু যেকোনো প্ল্যাটফর্মে কাজ শুরুর আগে সেখানকার অনুকূলতা ও প্রতিকূলতা, দুটি বিষয়েই জেনে নেওয়া উচিত। তাই নতুন উদ্যোক্তাদের ক্ষেত্রে পুরনো গাড়ির ব্যবসায়ে নামার আগে নিজেকে প্রস্তুত রাখা উচিত।

আগ্রহ এবং অভিজ্ঞতা

গাড়ির ব্যবসা শুরু করার আগে আপনাকে অবশ্যই গাড়ির প্রতি আগ্রহ থাকতে হবে। কারণ এই ব্যবসায় সফল হওয়ার জন্য আপনাকে একটি গাড়ি সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবে। এছাড়াও, আপনাকে অবশ্যই গাড়ি বিক্রি বা রক্ষণাবেক্ষণের কিছু অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

অনলাইনে উপস্থিতি

আপনি পেশাদার ওয়েবসাইট তৈরি করুন এবং আপনার ব্যবসার প্রসার বাড়াতে অনলাইন প্ল্যাটফর্মের সুবিধা নিতে পারেন। গ্রাহকরা যেন গাড়ি বুক করতে পারে, মূল্য দেখতে এবং অনলাইনে ভিজিট করে একটি গাড়ির তথ্য যাচাই করতে পারে। বিভিন্ন সময় নানা রকম অফার দিয়ে প্রচার করতে সামাজিক মিডিয়ায় ব্যবহার করুন।

সঠিক পরিকল্পনা

গাড়ির ব্যবসা শুরু করার আগে আপনাকে একটি ভালো পরিকল্পনা করতে হবে। এই পরিকল্পনায় আপনাকে বিনিয়োগের পরিমাণ, বিপণন কৌশল, টার্গেট মার্কেট ইত্যাদি বিষয় বিবেচনা করতে হবে।

মার্কেটিং কৌশল

আপনার শ্রোতাদের কাছে পৌঁছাতে লক্ষ্যযুক্ত বিপণন কৌশল প্রয়োগ করুন। সচেতনতা বাড়াতে ডিজিটাল মার্কেটিং, এসইও এবং স্থানীয় ব্যবসার সঙ্গে অংশীদারত্ব ব্যবহার করুন ও বিজ্ঞাপন দিন। গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে এবং ধরে রাখতে প্রচার চালিয়ে যান।

চাহিদা অনুযায়ী গাড়ি

ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী শোরুমে গাড়ি ওঠানো। মাকের্টে যে সব গাড়ির চাহিদা যেমন জাপানের টয়োটা, হোন্ডা, মিতসুবিশি ও নিশান এই চার ব্র্যান্ডেরই রাজত্ব চলছে। এর মধ্যে টয়োটা সবচেয়ে এগিয়ে। টয়োটার এক্স-করলা, অ্যালিয়ন, প্রিমিও, প্রোবক্স, রাশ, অ্যাভেঞ্জা, প্রিয়াস, সিনথিয়া ইত্যাদি মডেলের গাড়ি বেশ জনপ্রিয়। ক্রেতাদের কথা মাথায় নিয়ে পুরনো সব গাড়ি বাজারজাত করা।

বাজারে কম বিক্রি হওয়া গাড়ি

অনেক কোম্পানির বিভিন্ন মডেলের গাড়ি বাজারে অনেক সময় চলে না। বিক্রি কম হওয়ায় এই গাড়িগুলিকে কোম্পানি তুলে নেয়। পরবর্তী সময়ে খুব কম দামে ‘সেকেন্ড হ্যান্ড’ হিসেবে বিক্রি করে তারা। সেই সব গাড়ি ক্রয় করে ভালো দামে বিক্রি করা যায়। তবে এই ধরনের গাড়িকে ‘স্ক্র্যাপ’ গাড়ি বলা হয়।

শেষ কথা

গাড়ির ব্যবসায় প্রতিযোগিতা দিন দিন বাড়ছে। তাই ব্যবসায় সফল হওয়ার জন্য আপনাকে ভালো মানের সেবা প্রদান করতে হবে। দিন দিন গাড়ির প্রযুক্তি ক্রমাগত পরিবর্তিত হচ্ছে। তাই ব্যবসায় সফল হওয়ার জন্য আপনাকে সর্বশেষ প্রযুক্তি সম্পর্কে অবগত

থাকতে হবে। অন্য দিকে আইনি ঝামেলা গাড়ির ব্যবসায় আইনি ঝামেলার সম্ভাবনা থাকে। তাই ব্যবসা শুরু করার আগে আইনি বিষয়গুলো সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিতে হবে। অথবা নিকটবর্তী বিআরটি অফিসের কর্মচারীদের সঙ্গে কথা বলে আইনি বিষয়ে তথ্য শিক্ষা নেওয়া।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত