বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

প্রযুক্তির কাছে হার লা লিগার

আপডেট : ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:২০ এএম

ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের মধ্যে শুধু লা লিগাতেই গোললাইন প্রযুক্তি নেই। এই প্রযুক্তি না থাকার কারণ হিসেবে লা লিগা সভাপতি বলেছিলেন, গোল লাইন প্রযুক্তি বেশ ব্যয়বহুল। সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে রবিবার এল ক্লাসিকোতে ৩-২ গোলে হারের পর গোললাইন প্রযুক্তি না থাকা নিয়ে আক্ষেপ করতেই পারেন বার্সেলোনার সমর্থকেরা।

ম্যাচে তখন ১-১ গোলের সমতা। ২৮ মিনিটে বার্সার কর্নার থেকে লামিন ইয়ামালের টোকা কোনোমতে ঠেকান রিয়াল মাদ্রিদ গোলকিপার আন্দ্রি লুনিন। ক্যামেরার বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল দেখে নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলটি পুরোপুরি গোললাইন পেরোনোর আগেই লুনিন ঠেকিয়েছেন কি না! ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) দেখার পর গোল দেননি মাঠের রেফারি। ধারাভাষ্যকাররাও তখন গোললাইন প্রযুক্তি না থাকা নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেন।

ম্যাচ শেষে জাভি বলেন, ‘জয়টা আমাদেরই প্রাপ্য ছিল। কী হয়েছে সবাই দেখেছে। আমি কিছু বলতে গেলে শাস্তি হবে, তাই আমার চুপ থাকাই ভালো। কিন্তু ছবি তো আছে। আজ মনে হচ্ছে আমরা অবিচারের শিকার হয়েছি। আমি ম্যাচের আগে বলেছিলাম আশা করি রেফারিং নিয়ে ভাবতে হবে না। সঠিক সিদ্ধান্তই দেবেন। কিন্তু দিন শেষে কোনোটাই ঘটেনি।’

বার্সেলোনা গোলকিপার টের স্টেগেন বলেন, ‘গোললাইনে কী ঘটেছে, বলার ভাষা আমি খুঁজে পাচ্ছি না। এটা ফুটবলের জন্যই অস্বস্তিকর। এখানে এত এত অর্থ, কিন্তু যেটা গুরুত্বপূর্ণ, সেটাই নেই। আমি বুঝতে পারছি না, যে প্রযুক্তি অন্যান্য লিগে আছে, আমরা কেন সেটা নিতে পারছি না।’

বার্নাব্যুতে ম্যাচের ষষ্ঠ মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল বার্সেলোনা। ১৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে সমতায় ফিরে রিয়াল। ২৮ মিনিটে ঘটে বিতর্কিত সেই ঘটনা। ৬৯ মিনিটে ফেরমিন লোপেজ গোল করে এগিয়ে দেন বার্সেলোনাকে। চার মিনিট পরই ফের সমতায় ফেরে রিয়াল।  যোগ করা সময়ের প্রথম মিনিটে গোল করেন জুড বেলিংহ্যাম। বাকি কয়েক মিনিট ৩-২ ব্যবধান ধরে রেখে জয় পায় রিয়াল মাদ্রিদ। বার্সার সাথে পয়েন্টের ব্যবধান তাদের। হাতে ৬ ম্যাচ। আর ৮ পয়েন্ট তুলে নিতে পারলেই ৩৬তম লিগ শিরোপা নিশ্চিত হবে রিয়ালের।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত