শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

ভারতে চতুর্থ ধাপে ভোট পড়ল ৬৩ শতাংশ

আপডেট : ১৪ মে ২০২৪, ০৬:৫৭ এএম

ভারতে লোকসভা নির্বাচনের চতুর্থ ধাপে ৬২ দশমিক ৯ শতাংশ ভোট পড়েছে। নয়টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত জম্মু-কাশ্মীরে ৯৬ আসনে ভোট হয়েছে গতকাল সোমবার। এদিন পশ্চিমবঙ্গ ও অন্ধ্রপ্রদেশ ছাড়া বাকি আসনগুলোতে মোটামুটি শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো।

গতকাল রাতে এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, নয়টি রাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভোট পড়েছে পশ্চিমবঙ্গে। সেখানে ভোট পড়েছে ৭৫ দশমিক ৬৬ শতাংশ। অশান্তির দিক থেকেও পশ্চিমবঙ্গ এক নম্বরে। আর সব চেয়ে কম ভোট পড়েছে কাশ্মীরের শ্রীনগরে ৩৬ শতাংশ।

এনডিটিভি বলছে, ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচন এবং ৩৭০ ধারা বিলোপের পর এই প্রথম কাশ্মীর উপত্যকায় ভোট হলো। ফলে পুরো দেশের নজর ছিল সেই দিকে। কাশ্মীরে ভোট শান্তিতে হয়েছে। কোনোরকম অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। অনেক কেন্দ্রেই সকাল থেকে মানুষ লাইন দিয়ে ভোট দিয়েছেন। এদিন ভোট ছিল শ্রীনগরে। বেশ কয়েকটি জায়গায় ভালো ভোট হয়েছে। আবার কিছু জায়গায় ভোটদানের হার ছিল বেশ কম। তবে ২০১৯-এর তুলনায় অনেক বেশি ভোট পড়েছে কাশ্মীরে। ২০১৯ সালে শ্রীনগরে ভোট পড়েছিল ১৪ দশমিক ৪৩ শতাংশ এবং ২০১৪ সালে ২৫ দশমিক ৮৬ শতাংশ। এবার প্রথম ঘণ্টাতেই শ্রীনগরে ভোট পড়ে প্রায় ১৫ শতাংশ। শেষপর্যন্ত ২০১৪ ও ২০১৯-এর ভোটের হারকে অনেকটাই পেছনে ফেলে দিয়েছে ২০২৪-এর ভোট।

এ ছাড়া মধ্যপ্রদেশে ভোট পড়েছে ৬৮ শতাংশ, ছত্তিশগড়ে ৬৩ দশমিক ১৪ শতাংশ, উত্তরপ্রদেশে ৫৬ দশমিক ৩৫ ও বিহারে ৫৪ দশমিক ১৪ শতাংশ।

পশ্চিমবঙ্গের সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা বলছে, পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে রবিবার রাতে এক তৃণমূল কর্মী খুন হয়েছেন। বোমা মারার পর তাকে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ। তৃণমূল অভিযোগ করেছে, সিপিএমের কর্মীরা এই খুন করেছে। আর সিপিএমের অভিযোগ, তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে এই খুন হয়েছে।

মন্তেশ্বরে বিজেপি প্রার্থী দিলীপ ঘোষের কনভয়ের ওপর আক্রমণ হয়েছে। গাড়ির কাচ ভেঙে দেওয়া হয়েছে। দিলীপের একজন নিরাপত্তারক্ষীর মাথায় ইটের আঘাত লেগেছে। দিলীপ ঘোষের সঙ্গে তৃণমূল কর্মীদের ধাক্কাধাক্কি হয়েছে। তৃণমূল কর্মীরা তার গাড়ির সামনে শুয়ে পড়ে, গো ব্যাক স্লোগান দেয়। দিলীপের অভিযোগ, বিজেপি এজেন্টকে এখানে মেরে বের করে দেওয়া হয়। তারপর তিনি গেলে তাকে ঘিরে বিক্ষোভ শুরু হয়।

এ ছাড়া বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষিপ্ত অশান্তি হয়েছে। বেলডাঙ্গায় কংগ্রেস এজেন্টকে ঢুকতে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। কৃষ্ণনগরের কালীগঞ্জে তৃণমূল ও সিপিএম কর্মীদের মধ্যে ক্যাম্প অফিসে বসা নিয়ে সংঘর্ষ হয়েছে।

এদিকে দক্ষিণ ভারতে ভোট শেষ হলো গতকাল। প্রথম তিন পর্বে কেরালা, তামিলনাড়ু, কর্ণাটকে ভোট হয়েছে। গতকাল তেলেঙ্গানা ও অন্ধ্রপ্রদেশের ভোট হলো। ওই দুই রাজ্যেই মোট ৯৬ আসনের ৪২ শতাংশ আসনে ভোট হয়েছে।

অন্ধ্রপ্রদেশে ওয়াইএসআরসিপি ও ওড়িশায় বিজেপি ক্ষমতায় আছে। এই দুই দলের সঙ্গে বিজেপির কোনো জোট হয়নি। তবে গত পাঁচ বছর লোকসভায় দুই দলই বিজেপিকে ইস্যুভিত্তিক সমর্থন করে গেছে।

গতকালের ভোটে ভাগ্যনির্ধারণ হবে সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদব, এআইএমআইএম নেতা আসাদুদ্দিন ওয়েইসি, বিদায়ী লোকসভার কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরী, তৃণমূল প্রার্থী ইউসুফ পাঠান, মহুয়া মৈত্র, কীর্তি আজাদ, বিজেপি নেতা ও কেন্দ্রের মন্ত্রী গিরিরাজ সিংয়ের।

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত