মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

দিনভর কঙ্গনা

আপডেট : ০৭ জুন ২০২৪, ১১:৪৬ পিএম

নবনির্বাচিত সাংসদ ও বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াতকে চড়ের ঘটনায় ভারতের সিআইএসএফ সদস্য কুলবিন্দরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাকে বরখাস্ত করেছে সিআইএসএফ। গত বৃহস্পতিবার চণ্ডিগড় থেকে দিল্লি আসার জন্য বিমানবন্দর যাচ্ছিলেন কঙ্গনা। এ সময় বিমানবন্দরের সিকিউরিটি চেকের সময়ই ঘটে যায় অঘটন। ভারতের সিআইএসএফের এক কর্মী চড় মেরে বসেন সাংসদ-অভিনেত্রী কঙ্গনাকে। পরে এ ঘটনায় ওই নারী রক্ষী কুলবিন্দরের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়। বৃহস্পতিবারের এ ঘটনা নিয়ে দিনভর আলোচনা চলে ভারতজুড়ে। এর আগে কুলবিন্দর জানিয়েছেন, দিল্লি জুড়ে ব্যাপক আলোড়ন তৈরি করা কৃষক আন্দোলনে ১০০ টাকার বিনিময়ে অংশ নিয়েছিলেন নারী কৃষকরা- সে সময় এমন বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন কঙ্গনা। সেই বিতর্কিত মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে কৃষকদের সম্মান রক্ষায় এই চড় দেওয়া হয়েছে বলে স্পষ্ট করেন কুলবিন্দর। কুলবিন্দর বিস্তারিত জানিয়ে বলেন, ‘দিল্লিতে যখন কৃষকরা আন্দোলন করছিলেন, তখন কঙ্গনা বলেছিলেন ‘১০০ থেকে ২০০ টাকা পেয়ে ওরা আন্দোলন করছে। আমার মা ওখানে ছিল, আন্দোলন করছিল।’ জানা গেছে, কুলবিন্দর সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্সের (সিআইএসএফ) একজন নারী কনস্টেবল। এ ঘটনার পর তাকে সাসপেন্ড করা হয়েছে এবং তার বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ করা হয়েছে। এ ছাড়া এ ঘটনার তদন্তের জন্য বিমানবন্দরে নিরাপত্তা প্রদানের দায়িত্বপ্রাপ্তদের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, সিআইএসএফ কনস্টেবল কুলবিন্দর কৃষক পরিবারের সন্তান। ২০০৯ সালে তিনি সিআইএসএফে যোগ দেন। ২০২১ সাল থেকে চণ্ডিগড় বিমানবন্দরে অ্যাভিয়েশন সিকিউরিটি গ্রুপ ফোর্সে রয়েছেন। এখন পর্যন্ত বাহিনীতে তার বিরুদ্ধে কোনো সতর্কতামূলক তদন্ত বা শাস্তি হয়নি। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তার স্বামীও একই বিমানবন্দরে কর্মরত। এদিকে নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে কঙ্গনা জানিয়েছেন, বর্তমানে তিনি সুরক্ষিত রয়েছেন।

 

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত