মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বজ্রপাতে ৬ জনের মৃত্যু

আপডেট : ০৮ জুন ২০২৪, ০১:৫০ এএম

নাটোরের নলডাঙ্গা ও গুরুদাসপুরে বজ্রপাতে নারীসহ দুজন এবং ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।  এ ছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ ও ভোলাহাটে বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে এসব ঘটনা ঘটে।  নাটোরের নলডাঙ্গায় মারা যাওয়া তরুণের নাম মো. কামরুল হোসেন (৩৫)। তিনি উপজেলার ব্রহ্মপুর ইউনিয়নের কোমরপুর গ্রামের মো. লুৎফর রহমানের ছেলে।

ব্রহ্মপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান এস এম আশরাফুজ্জামান কামরুলের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, দুপুরে কোমরপুরে গ্রামে বারনই নদীতে মাছ ধরার সময় বজ্রপাতে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে গুরুদাসপুর উপজেলার পৌর এলাকার আনন্দনগরে বজ্রপাতে মারা যাওয়া গৃহবধূর নাম আবেরা বেগম (৪০)। দুই সন্তানের জননী ওই নারী একই এলাকার সাদ্দাদ হোসেনের স্ত্রী।

আবেরা বেগমের স্বজন ও পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফজলুর রহমান ফজল বলেন, দুপুর ২টার দিকে আকাশে মেঘ দেখে আবেরা বেগম বাড়ির পাশের ডোবা থেকে হাঁস ফিরিয়ে আনতে যান। এ সময় বৃষ্টি শুরু হলে তিনি একটি আম গাছের নিচে আশ্রয় নেন। তখন পাশে বিকট শব্দে বজ্রপাত হলে তিনি সেখানেই লুটিয়ে পড়েন। পরে স্বজনরা উদ্ধার করে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অন্যদিকে ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ উপজেলার জাবরহাট ইউনিয়নের রনশিয়া গ্রামে বজ্রপাতে মারা যাওয়া নারীর নাম লিপি আক্তার (৩৫)। তিনি একই গ্রামের ফিরোজ জামানের স্ত্রী।

জাবরহাট ইউপির চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান বলেন, দুপুরে বজ্রপাতে লিপি আক্তার নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। তিনি বাড়ির পাশে ভুট্টার ডাঁটা তুলতে গিয়েছিলেন।

এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ ও ভোলাহাটে বজ্রপাতে দুই শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল দুপুরে ঝড়বৃষ্টির সময় বজ্রপাত হলে তারা মারা যায়।

ভোলাহাট থানার ওসি সুমন কুমার জানান, ভোলাহাট উপজেলার আন্দিপুরের (হঠাৎপাড়া, আশ্রয়ণ প্রকল্প) ইসলাম আলীর মেয়ে আমেনা খাতুন (১০) বাড়ির পাশের আম বাগানে আম কুড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে মারা যায়। শিবগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রকৌশলী অরিফুল ইসলাম জানান, দুপুরে পৌর এলাকার আলীডাঙ্গায় বজ্রপাতের শিকার হয়ে মারা যান হরিজন পল্লীর ববি ভকত (৩২) নামে এক নারী। তিনি আলীডাঙ্গা মহল্লার সুভাস ভকতের স্ত্রী।

এ ছাড়া শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের দক্ষিণ পাকা নিশিপাড়ায় বিকেলে টিউবওয়েল থেকে পানি আনতে গিয়ে বজ্রপাতে কবিতা খাতুন (১১) মারা যায়।

প্রতিবেদনটি তৈরিতে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেছেন নাটোর, গুরুদাসপুর (নাটোর), চাঁপাইনবাবগঞ্জ, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত