মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

হজযাত্রায় হাবের ৯ সুপারিশ

আপডেট : ১১ জুন ২০২৪, ০২:৩৯ এএম

হজযাত্রীদের ভিসা, বিমান ভাড়াসহ হজের খরচ কমাতে ৯টি সুপারিশ করেছে হজ এজেন্সিগুলোর সংগঠন হাব। সুপারিশগুলোর মধ্যে হজযাত্রীদের সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রচার-প্রচারণাসহ হজ প্যাকেজের সুবিধাগুলোর ক্ষেত্রে লিখিত চুক্তির দাবি জানানো হয়েছে। সেই সঙ্গে হজ কার্যক্রমে সংযুক্ত ব্যাংকগুলো যেন কোনো অনিয়ম করতে না পারে সে বিষয়েও কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

গতকাল সোমবার আশকোনা হজ ক্যাম্পে চলতি বছরের হজ কার্যক্রমের সমাপ্তি উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব সুপারিশ তুলে ধরেন সংগঠনটির সভাপতি শাহাদাত হোসাইন তসলিম।

হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (হাব) সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, হজযাত্রীদের সঙ্গে প্রতারণাকারী হজ এজেন্সিগুলোকে কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে। ইতিমধ্যে এক এজেন্সির মোনাজ্জেমকে হজ কার্যক্রম থেকে বিরত রাখাসহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে। একই সঙ্গে হজের পাশাপাশি সৌদি আরবের নিয়মকানুন সম্পর্কে জানতে ও মেনে চলতে হজযাত্রীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

হাব সভাপতি আরও বলেন, ১৫ জুন পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। বাংলাদেশ ও সৌদি সরকারের মধ্যে দ্বিপক্ষীয় হজচুক্তি অনুসারে বাংলাদেশের জন্য এ বছর ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজযাত্রীর কোটা বরাদ্দ হয়। এর মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১০ হাজার ১৯৮ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১ লাখ ১৭ হাজার কোটা বরাদ্দ হয়। এ বছর ২৫৯টি হজ এজেন্সি অপারেটিং হজ এজেন্সির দায়িত্ব পালন করছে।  বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের জন্য কোরবানি ছাড়া সর্বনিম্ন প্যাকেজ মূল্য জনপ্রতি ৫ লাখ ৮৯ হাজার ৮০০ টাকা।

এ বছর ভিসা ও টিকিট ইস্যুর অনিশ্চয়তা ছিল জানিয়ে হাব সভাপতি বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে, প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে ও নির্দেশনায়, ধর্ম মন্ত্রণালয় এবং হাবের যৌথ প্রচেষ্টায় নিবন্ধিত হজযাত্রীদের প্রায় সব ভিসা ও টিকিট ইস্যু সম্ভব হয়েছে। সামান্য কিছু হজযাত্রী প্রতি বছরই অসুস্থতা, মৃত্যুজনিত কারণ বা অন্যান্য ব্যক্তিগত কারণে স্বেচ্ছায় গমন বাতিল করেন। সব মিলিয়ে এবার হজযাত্রা সুষ্ঠু হয়েছে।’

ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের হজ ব্যবস্থাপনা পোর্টালের তথ্যমতে, এ পর্যন্ত ১৯৩টি ফ্লাইটের মধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ১০১টি, সৌদি এয়ারলাইনসের ৫৬টি এবং ফ্লাইনাস এয়ারলাইনস ২৭টি ফ্লাইট পরিচালনা করেছে। এসব ফ্লাইটে এখন পর্যন্ত সৌদি আরবে পৌঁছেছেন ৭৬ হাজার ৩২৫ জন। তাদের মধ্যে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৫ হাজার ২১৭ জন এবং বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় গেছেন ৭১ হাজার ১০৮ জন।

এ বছর সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় গাইডসহ হজ পালনের জন্য নিবন্ধন করেছেন ৮৫ হাজার ২৫২ জন। এর মধ্যে সরকারিভাবে ৪ হাজার ৫৬২ এবং বেসরকারিভাবে নিবন্ধন করেছেন ৮০ হাজার ৬৯৫ জন। প্রতি ৪৪ জনে একজন গাইড হিসেবে ১ হাজার ৮৯৯ জন হজযাত্রীর সঙ্গে যাবেন।

   
সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত