বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১
দেশ রূপান্তর

বাবা ও আমার বিষাদের ঈদ!

আপডেট : ১৫ জুন ২০২৪, ০২:০৯ এএম

আমার বাবা সাংবাদিক। মা সরকারি চাকরিজীবী। আমাকে গৃহকর্মীর কাছে রেখে দুজনকেই অফিস করতে হয়। আমি সারাটা দিন জানালার কাছে বসে বাবা-মায়ের জন্য অপেক্ষা করি। কখন মা আসবে আর কখন বাবা আসবে। মা তাও বিকেলের মধ্যে চলে আসে, কিন্তু বাবা? বাবার আসতে আসতে আমি ঘুমিয়ে যাই।

একটু বড় হলে বাবা আমাকে নিয়ে ভোরবেলায় স্কুলে দিয়ে আসত আর নিয়ে আসত। আর একটু বড় হলে আমাকে স্কুলের বাসে যাতায়াত করতে শুরু করি। আমাকে মা সকালে স্কুলের বাসে উঠিয়ে দেয়। স্কুল শেষে বাস থেকে নেমে আমি একাই বাসায় আসি। বাসায় এসে আমাকে একাই থাকতে হয়। বাবা-মা দুজনেই যে অফিসে!

ঈদের সময়ও আমি অপেক্ষায় থাকি। ভাবি, ঈদে গ্রামে যাব। বাড়িতে যাব। বাবার সঙ্গে ঈদের চাঁদ দেখব। ঈদের সারাটা দিন বাবার হাত ধরে ঘুরব। ঈদের ছুটিতে আমার বান্ধবীরা বাড়িতে যায়। গ্রামে যায়। কিন্তু আমার কোথাও যাওয়া হয় না। আমার ভাবনাগুলো আমারই থাকে। ঈদের সময় মায়ের ছুটি থাকলেও বাবার ছুটি নেই। বাবা যে সাংবাদিক! ঈদের দিনও বাবাকে অফিসে যেতে হয়।

কবে আমার আনন্দের ঈদ আসবে, কবে আমি বাবার হাত ধরে ঘুরতে পারব, কবে আমি বাবার সঙ্গে ঈদের চান রাতে ঘুরতে বের হব আমি অপেক্ষায় থাকি!

শিক্ষার্থী, ষষ্ঠ শ্রেণি

ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট গার্লস পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ঢাকা

সর্বশেষ সর্বাধিক পঠিত আলোচিত