হাইকিং-এ নিরাপদ থাকুন|110726|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ নভেম্বর, ২০১৮ ১৬:০০
হাইকিং-এ নিরাপদ থাকুন
অনলাইন ডেস্ক

হাইকিং-এ নিরাপদ থাকুন

শীতকালে হাইকিং-এ যাওয়া মানেই রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা।

শীতকালে হাইকিং-এ যাওয়া মানেই রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা। হিম হিম বাতাস, কুয়াশা, মিষ্টি রোদ আর আকাশে যদি থাকে অতিথি পাখির উড়াউড়ি- বেশ লাগে। তবে বাংলাদেশে অপ্রচলিত এ ভ্রমণ বেশ চ্যালেঞ্জের বিষয়। প্রথমবার হলে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে, অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতিতেও পড়তে পারেন।

যারা প্রথমবার ঘুরতে যাচ্ছেন তাদের জন্য কিছু টিপস তুলে ধরা হলো। আশা করি আপনার হাইকিং নিরাপদ হবে ও অভিজ্ঞতা হবে স্মরণীয়।

গোপনীয়তা নয়: প্রথমবার ভ্রমণের ক্ষেত্রে একা যাওয়ার পরিকল্পনা না করাই ভালো। কোথায় যাচ্ছেন ও কবে নাগাদ ফিরবেন পরিবারের সদস্যদের জানিয়ে রাখুন। হাইকিং-এর পরিকল্পনা তাদের জানিয়ে রাখুন।

গন্তব্যপথ সম্পর্কে সজাগ থাকুন: শীতকালে দিন ছোট এবং কুয়াশার কারণে রাস্তা চিনতে সমস্যা হতে পারে। টর্চলাইন, হ্যান্ডল্যাম্প সঙ্গে নিতে ভুলবেন না। সবসময় একটি মানচিত্র সঙ্গে রাখবেন। মোবাইলের ইন্টারনেট প্যাক আপডেট রাখুন, ঝটপট লোকেশনে চিহ্নিত করতে সাহায্য করবে। রাখতে পারেন জিপিএস ডিভাইস।

প্রয়োজনীয় জিনিস সঙ্গে নিন: দীর্ঘ সময়ের হাইকিং-এর জন্য বুট জাতীয় জুতা বা ভ্রমণ স্থান উপযোগী জুতা সঙ্গে নেবেন। জুতা পানি নিরোধী হলে ভালো নয়। বাড়তি পানি, খাবার নিতে ভুলবেন না। এছাড়াও বাড়তি জামাকাপড়, আগুন, লাইট, বাঁশি, ছুরি, সানস্ত্রিম ক্রিম, সানগ্লাস ডেপ্যাক, ব্যাকপ্যাক এগুলো নিতে পারেন। 

হাইপোথার্মিয়ায় সতর্ক থাকা: শীতে ভ্রমণের সময় শরীরের তাপমাত্রা কমে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন। এ কারণে গরম জামাকাপড় ব্যাকপ্যাকে রাখতে হবে। অনেক পথ হাঁটার ফলে শীতেও শরীর উষ্ণ থাকে এবং ঘাম ঝরে। এ কারণে হালকা জামাকাপড় পরে নেন অনেকে। তবে হাঁটা থামিয়ে দিলে শরীর দ্রুত শীতল হয়ে যায়। এ কারণে পাতলা কম্বল, বাড়তি খাবার, থার্মোমিটার ব্যাকপ্যাকে রাখুন।

শরীর আর্দ্র রাখুন: ঠান্ডার মধ্যে থাকলে পর্যাপ্ত পানি খাওয়া হয় না। অনেকে শুধু কফি বা গরম চকোলেট পান করেন। কিন্তু বেশি সময় হাঁটার ফলে শরীর থেকে ঘাম ঝরে, দেহে পর্যাপ্ত পানির প্রয়োজন পড়ে। বোতলের পানি বেশি ঠান্ডা হয়ে গেলে উলের মোজার ভেতর বা জ্যাকেটের মধ্যে রেখে উষ্ণ করে নিতে পারেন।