সৌদি যুবরাজের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ|110797|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৭ নভেম্বর, ২০১৮ ২০:০৮
সৌদি যুবরাজের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ
অনলাইন ডেস্ক

সৌদি যুবরাজের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ

সৌদি যুবরাজের বিরুদ্ধে অভিযোগ তদন্তের ইঙ্গিত দিয়েছে আর্জেন্টিনা। ছবি:এপিএস

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ এনেছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ (এইচআরডব্লিও)। ইয়েমেন যুদ্ধে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের হামলা ও তুরস্কে সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার জন্য বিন সালমানকে দায়ী করেছে তারা।

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আনাদলু জানায়, আর্জেন্টিনার একটি আদালতে বিন সালমানের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ দায়ের করা হয় বলে সোমবার জানায় এইচআরডব্লিও। চলতি সপ্তাহে জি-২০ সম্মেলনে যোগ দিতে বুয়েন্স আয়ার্সে যাওয়ার কথা সৌদি যুবরাজের। যিনি পশ্চিমা বিশ্বে ‘এমবিএস’ নামে পরিচিত।

এক বিবৃতিতে এইচআরডব্লিও জানায়, ইয়েমেন যুদ্ধে সৌদি জোটের হামলায় এবিএসের ভূমিকা এবং ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে খাসোগি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা যাচাই করে দেখছে আর্জেন্টিনা সরকার।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট সৌদি সাংবাদিক খাসোগি বিয়ে সংক্রান্ত কাজে ২ অক্টোবর সৌদি কনস্যুলেটে প্রবেশ করলে নিখোঁজ হন। তিনি কনস্যুলেট থেকে জীবিত বের হয়ে গেছেন শুরুতে সৌদি কর্তৃপক্ষ এমন দাবি করলেও পরে স্বীকার করে, তিনি হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন।

এইচআরডব্লিও’র নির্বাহী পরিচালক কেনেথ রোথ বলেন, তার মতো (এবিএস) প্রভাবশালী একজন ব্যক্তির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তদন্ত করার বিষয়ে ‘শক্ত ইঙ্গিত’ দিয়েছে আর্জেন্টিনা কর্তৃপক্ষ।

তিনি বলেন, “মোহাম্মদ বিন সালমানের সতর্ক হওয়া উচিত, আর্জেন্টিনায় আসলে তাকে আদালতের মুখোমুখি হতে হবে।”

প্রসঙ্গত, আর্জেন্টিনার আইনে বিশ্বের যে কোনো জায়গায় সংঘটিত যুদ্ধাপরাধ ও নির্যাতনের বিরুদ্ধে তদন্ত চালানোর অধিকার রাখে দেশটির বিচার বিভাগ।