নৌকার বিজয় নিশ্চিতে তৃণমূলে শেখ হাসিনার চিঠি|111071|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:৪০
নৌকার বিজয় নিশ্চিতে তৃণমূলে শেখ হাসিনার চিঠি
নিজস্ব প্রতিবেদক

নৌকার বিজয় নিশ্চিতে তৃণমূলে শেখ হাসিনার চিঠি

দল মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীদের বিজয়ী করতে সারা দেশে চিঠি পাঠিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শুক্রবার নিজের স্বাক্ষর করা এক চিঠিতে তিনি বলেন, ‘‘স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধ ও সমৃদ্ধির প্রতীক ‘নৌকা’ প্রতীকের বিজয় সুনিশ্চিত করতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় অংশগ্রহণ করুন।’’

চিঠিতে দলের প্রার্থীদের উদ্দেশে শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমাদের সংগঠনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রাপ্তির প্রত্যাশায় সংগঠনের ‘সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ড’-এ আবেদন করার জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আওয়ামী লীগ জনগণের একটি ঐতিহ্যবাহী ও প্রাচীনতম রাজনৈতিক সংগঠন। দেশের মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রাম, ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে স্বাধিকার, স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দিয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সংগঠন আওয়ামী লীগ।’’

চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘‘আওয়ামী লীগের সব সাংগঠনিক কার্যক্রমের মতো যেকোনো নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়াও পরিচালিত হয় একটি সুনির্দিষ্ট গণতান্ত্রিক পদ্ধতি অনুসরণ করে। আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সদস্যদের সুচিন্তিত মতামত, তৃণমূল নেতাদের পরামর্শ এবং আমাদের সংগঠনকর্তৃক পরিচালিত একাধিক নিবিড় জরিপ কার্যক্রমের সুপারিশের ভিত্তিতে দলীয় প্রার্থিতা চূড়ান্ত করা হয়।’’

চার হাজারের বেশি নেতা দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন উল্লেখ করে চিঠিতে শেখ হাসিনা মনোনয়ন না পাওয়াদের প্রতি দুঃখ প্রকাশ করেছেন।  তাদের আওয়ামী লীগ ও মহাজোটের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

চিঠিতে তিনি বলেন, ‘‘আপনি অবগত আছেন, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্তির জন্য চার হাজারের অধিক ব্যক্তি মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন। আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে তাদের প্রায় সকলেরই ত্যাগ ও অবদান রয়েছে। রাজনৈতিক ত্যাগ, দক্ষতা, যোগ্যতা ও জনপ্রিয়তার বিচারে প্রায় প্রত্যেক আসনে ছিল একাধিক যোগ্য প্রার্থী। একাধিক আবেদনকারীর মধ্য থেকে একজনকে প্রার্থী হিসেবে নির্ধারণ করার কাজটি ছিল অত্যন্ত কঠিন ও দুরূহ।’’

নির্বাচন সামনে রেখে ২৫০ দলীয় নেতাকে মনোনয়ন দিয়েছে আওয়ামী লীগ।  ৫০ আসনে জোটসঙ্গীদের মনোনয়ন দিয়েছে দলটি। এমন বাস্তবতায় মনোনয়ন বঞ্চিতদের দলকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী তাদের ভূমিকার প্রশংসা করে বলেন, ‘‘আমাদের সংগঠনের মনোনয়ন প্রদানের সুনির্দিষ্ট পদ্ধতিগত প্রক্রিয়া ও সংসদীয় বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আপনাকে মনোনয়ন দিতে না পারায় আমি আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি। আওয়ামী লীগকে একটি শক্তিশালী ও কল্যাণমুখী রাজনৈতিক দলে পরিণত করার কাজে আপনার ভূমিকা ছিল প্রশংসনীয়।’’

চিঠিতে দলীয় নেতাকর্মীদের বিএনপি-জামায়াতের ‘হিংস্র থাবা থেকে’ দেশ ও জাতিকে রক্ষার তাগিদ দেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী। ঐক্যবদ্ধ নির্বাচনের স্বার্থে তিনি দলীয় মনোনয়ন না পাওয়াদের মহাজোটের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার অনুরোধ জানান।

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে জয়ের আশাবাদ ব্যক্ত করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমাদের প্রাণপ্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিপুল ভোটে জয় লাভ করে আবারও বাংলাদেশের জনগণের সেবা করার সুযোগ পাবে। সেই বিজয়ের অংশীদার হবেন আপনিও।’’