শীতে হাত সবসময় ঠান্ডা থাকে?|111089|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:৩৫
শীতে হাত সবসময় ঠান্ডা থাকে?
অনলাইন ডেস্ক

শীতে হাত সবসময় ঠান্ডা থাকে?

শীতে হাত ঠান্ডা থাকা স্বাভাবিক। তবে সারাদিন হাত ঠান্ডা থাকাটা ভালো লক্ষণ নয়। অনেকের তো আবার সারা বছরই হাত ঠান্ডা থাকে। শরীরের অভ্যন্তরীণ কিছু কারণে সাধারণ তাপমাত্রায়ও হাত ঠান্ডা থাকে। অ্যানিমিয়া, ভিটামিনের অভাব, অটোইমিউন এবং হাইপোথাইরয়েডিজমকে এই অবস্থার জন্য দায়ী করা হয়।

যেসব কারণে সবসময় হাত ঠান্ডা থাকে

অ্যানিমিয়া: অক্সিজেনসমৃদ্ধ রক্ত চলাচলের মাধ্যমে হাতে হিমোগ্লোবিন পৌঁছায়। এর ঘাটতি দেখা দিলে হাত ঠান্ডা হতে পারে। অ্যানিমিয়া শরীর অবসন্ন ও দুর্বল করে দেয়। অ্যানিমিয়ার প্রধান কারণ দেহে আয়রনের ঘাটতি হওয়া। আয়রনসমৃদ্ধ খাবার খেলে অ্যানিমিয়া ও হাত ঠান্ডা হওয়া থেকে প্রতিকার পেতে পারেন।

ঠান্ডা তাপমাত্রা: শীতল হাতের কারণ হিসেবে ঠান্ডা তাপমাত্রা সাধারণত দায়ী। তবে অবশ্যই ফ্রস্টবাইট সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে। এটি ত্বক ও এর কোষগুলোকে ঠান্ডা করে। অত্যধিক ঠান্ডা আবহাওয়ায় ফ্রস্টবাইট মিনিটের মধ্যে অনাবৃত ত্বকে আক্রমণ করতে পারে। এটি ত্বক, পেশি, কোষ ও হাড়ের স্থায়ী ক্ষতি করতে পারে। যাদের হাতে রক্ত চলাচল কম হয়, রাইনাডের লক্ষণ বা অন্যান্য স্বাস্থ্য সমস্যায় ফ্রস্টবাইটের ঝুঁকি বাড়ে।

রাইনাডের লক্ষণ: এর কারণে দেহে রক্ত প্রবাহের মাত্রা কমে যায়। এতে শরীর ঠান্ডা এমনকি অসাড় হয়ে যায়। বিভিন্ন অঙ্গে বিশেষ করে আঙ্গুলে এই অবস্থা অনুভূত হয়। রক্ত সঞ্চালন সঠিকভাবে না হলে রাইনাড আক্রমণ করে। এর কারণে ত্বকের রঙ নীল এবং লালে পরিণত হয়ে পড়ে। রাইনাডের আক্রমণ শেষে আঙ্গুল স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসে, আঙ্গুলে ফোলাভাব দেখা দেয়। এই অবস্থা থেকে মুক্তির কোনো চিকিৎসা নেই। তবে ঠান্ডা হাতের কারণে অস্বস্তি অনুভব করলে ডাক্তারের শরণাপন্ন হতে পারেন। চিকিৎসক রক্ত সঞ্চালন ঠিক রাখার জন্য কিছু ওষুধ লিখে দেবেন।

ভিটামিন বি১২ ঘাটতি: শরীরে ভিটামিন বি১২ অভাবেও হাত ঠান্ডা হতে পারে। এর কারণে কিছু নিউরোলজিক্যাল সমস্যা যেমন- হাত-পায়ে অসাড়তা, ঠান্ডা অনুভব এবং অস্বস্তিকর অনুভূতি হতে পারে।

ভিটামিন বি১২ এর উৎস মাছ, মাংস, ডিম, দুগ্ধজাত খাবার, পোল্ট্রি খাওয়া নিশ্চিত করতে হবে।

হাইপোথাইরয়েডিজম: থায়রয়েড কমে গেলে হাত ঠান্ডা হয়। এর কারণে হাতের আঙ্গুল ঠান্ডা হয় না, তবে শরীরে শীতলতা বাড়তে পারে। থায়রয়েড পর্যাপ্ত হরমোন উৎপন্ন না করলে হাইপোথাইরয়েডিজম ঘটে। এর কারণে ওজন বৃদ্ধি, ফোলা চোহারা, শুষ্ক ত্বক, চুলপড়া, হতাশা, হার্টের রোগ, স্থূলতা এবং নারীদের বন্ধ্যাত্ব দেখা দিতে পারে।

ধুমপান: ধুমপান করার কারণে রক্ত সঞ্চালনে ব্যাঘাত ঘটতে পারে, যা ঠান্ডা হাতের কারণ হতে পারে। ধুমপান করা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এবং এর কারণে ক্যান্সার হতে পারে।

হাত উষ্ণ রাখার উপায়

১. হালকা ব্যায়াম করার চেষ্টা করুন যাতে রক্ত সঞ্চালন ঠিক থাকে।

২. হাত বগলের নিচে রাখুন। এতে হাতে উষ্ণতা পাবেন।

৩. হাতের আঙ্গুলগুলো জড়ো করে রাখুন।

৪. হাত উষ্ণ রাখার জন্য সাধারণ হাতমোজা ব্যবহারের পরিবর্তে দুই স্তরের হাতমোজা ব্যবহার করতে পারেন।