বার্সার মাঠে ড্র করে শেষ ষোলোয় টটেনহ্যাম|111244|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১০:০২
বার্সার মাঠে ড্র করে শেষ ষোলোয় টটেনহ্যাম
অনলাইন ডেস্ক

বার্সার মাঠে ড্র করে শেষ ষোলোয় টটেনহ্যাম

বার্সেলোনার বিপক্ষে গোল করার পর টটেনহ্যাম হটস্পার খেলোয়াড়দের উল্লাস। ছবি: টটেনহ্যাম টুইটার

‘মিশন ইমপসিবল’ পসিবল করেছে টটেনহ্যাম হটস্পার। বার্সেলোনার মাঠে পিছিয়ে পড়েও শেষ মুহূর্তের গোলে দারুণ এক ড্র নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর টিকিট পেয়েছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাবটি।

কাম্প নউয়ে মঙ্গলবার ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। প্রথম লেগে টটেনহ্যামের মাঠে ৪-২ গোলের জয় পেয়েছিল এরনেস্তো ভালভেরদের দল।

নিজেদের মাঠে শুরুতেই উসমানে দেম্বেলের গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। ম্যাচের নির্ধারিত সময়ের খেলা শেষ হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে সমতা ফেরান অতিথি দলের ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার লুকাস মৌরা।

অমূল্য এই এক পয়েন্টে ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতাটির নক-আউট পর্বে টটেনহ্যাম। প্রথম তিন ম্যাচে এক পয়েন্ট অর্জন থাকলেও গ্রুপে নিজেদের ছয় ম্যাচ শেষে তাদের পয়েন্ট দাঁড়িয়েছে ৮।

এদিন গ্রুপের অন্য ম্যাচে নিজেদের মাঠে পিএসভি আইন্দহোভেনের সঙ্গে ১-১ ড্র করেছে ইন্টার মিলান। ছয় ম্যাচে ইতালিয়ান ক্লাবটির পয়েন্টেও ৮। কিন্তু মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে থাকায় পরের রাউন্ডের টিকিট পেয়েছে টটেনহ্যাম। ১৪ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করে ফেলা বার্সেলোনা।

আগেই নক-আউট পর্ব নিশ্চিত থাকায় ম্যাচটিতে কম শক্তিশালী দল নামায় লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা। সবশেষ ম্যাচে এস্পানিওলের বিপক্ষে জয়ী দলে সাতটি পরিবর্তন আনেন কোচ এরনেস্তো ভালভেরদে। ছিলেন না দলের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় লিওনেল মেসি, প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগান, গুরুত্বপূর্ণ লেফট-ব্যাক জর্দি আলবা ও ডিফেন্ডার জেরার্দ পিকে। চোটের কারণে স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেসের না খেলাটা অনিশ্চিত ছিল আগেই।

তবে নিজেদের মাঠে বার্সেলোনা চেনা রূপে ছিল শুরু থেকেই। দেম্বেলের অসাধারণ এক গোলে ম্যাচের সপ্তম মিনিটে এগিয়ে যায় লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা। মাঝ মাঠ থেকে বল কেড়ে নিয়ে এক দৌড়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া ফরাসি এই ফরোয়ার্ড বাঁ পায়ের নিখুঁত শটে জালে জড়ান বল।

৩০ ও ৩১তম মিনিটে দুটি সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেনি তারা। এর মধ্যে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ পেয়েও ব্যর্থ হয়েছেন বার্সেলোনার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফিলেপে কৌতিনিয়ো।

দ্বিতীয়ার্ধে বল দখল ও আক্রমণে অনেকটা এগিয়ে ছিল টটেনহ্যাম। তবে বারবার গোলের সুযোগ তৈরি করেও স্বাগতিক দলের রক্ষণভেদ করতে পারছিল না তারা।

৮৪তম মিনিটে আরেকটি গোল করতে পারত বার্সেলোনা। ডি-বক্স থেকে নেওয়া কৌতিনিয়োর শটটি পোস্টে লাগে। পরের মিনিটেই সমতা ফিরিয়ে বসে টটেনহ্যাম। বাঁ দিক থেকে কেইনের বাড়ানো আড়াআড়ি বল নিখুঁত প্লেসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন বদলি নামা ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার লুকাস। এ গোলেই সেরা ষোলো ওঠার আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে টটেনহ্যাম।