মস্কোর কাছে উড়ে গেল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল|111348|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৯:৩২
মস্কোর কাছে উড়ে গেল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল
অনলাইন ডেস্ক

মস্কোর কাছে উড়ে গেল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন রিয়াল

রিয়ালের মাঠে রাশিয়ান ক্লাব সিএসকেএ মস্কোর গোল উল্লাস। ছবি: সিএসকেএ মস্কোর টুইটার

আগেই গ্রুপের শীর্ষস্থান ও শেষ ষোলো নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় ম্যাচটি নিয়ে কোনো চাপ ছিল না রিয়াল মাদ্রিদের। মূল দলের অনেককে বাইরে রেখে একাদশ সাজিয়েছিলেন কোচ সান্তিয়াগো সোলারি। তাতে সিএসকেএ মস্কোর কাছে পাত্তা পেল না স্পেনের সবচেয়ে সফল ক্লাবটি।

সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ‘জি’ গ্রুপে নিজেদের শেষ ম্যাচে রাশিয়ার ক্লাবটির কাছে ৩-০ গোলে হারে রিয়াল। ইউরোপ সেরা প্রতিযোগিতায় নিজেদের মাঠে এটা তাদের সবচেয়ে বড় ব্যবধানের হার। এর আগে প্রথম লেগে মস্কোর মাঠেও ১-০ গোলে হেরেছিল প্রতিযোগিতাটির বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

ম্যাচটিতে বিশাল জয় পেলেও গ্রুপ পর্বেই শেষ হচ্ছে মস্কোর চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। ছয় ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্টে গ্রুপের তলানির দল তারা। চার জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নকআউট পর্বে ওঠেছে প্রতিযোগিতাটির টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল। ৯ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে শেষ ষোলোয় ওঠেছে রোমা।

মস্কোর বিপক্ষে রিয়াল একাদশে ছিলেন না তারকা উইঙ্গার গ্যারেথ বেল ও ব্যালন ডি’অর জয়ী লুকা মদ্রিচসহ অনেক খেলোয়াড়। দুর্বল দল নামানোর জবাব প্রথমার্ধেই পেয়ে যায় দলটি। ফিওদোর চালোভ ও শেনিকভের গোলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় মস্কো।

দ্বিতীয়ার্ধে দলের আক্রমণভাগ শক্তি বাড়াতে বেলকে নামান সোলারি। তাতে খুব একটা কাজ হয়নি। বরং বেলকে চোটে ভুগতে দেখা গেছে। প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে অবশ্য ম্যাচের শেষ পর্যন্তই খেলেছেন ওয়েলসের এই উইঙ্গার।

শক্তি বাড়াতে বদলি হিসেবে নামানো হয় টনি ক্রুস ও দানি কারভালকে। তাতেও খেলার মোড় ঘুরাতে পারেনি রিয়াল। বরং ম্যাচের আরও একটি গোল খেয়ে বসে তারা। এবার গোলটি করেন মস্কোর মিডল্ডিার সিগুর্দসন। বিশাল জয়ের আনন্দে মাতে অতিথি দল।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে মস্কোই একমাত্র দল, যারা হোম ও অ্যাওয়ে উভয় ম্যাচেই রিয়ালকে হারানোর কৃতিত্ব দেখাল।

গ্রুপের অপর ম্যাচে আইসল্যান্ডের ক্লাব ভিক্তোরিয়া প্লজেনকে ২-১ গোলে হারায় রোমা। ইতালিয়ান ক্লাবটির জন্য ম্যাচটি ছিল বাঁচা-মরার। হেরে গেলে বা ড্র করলে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হতো তাদের। সেক্ষেত্রে শেষ ষোলোয় উঠত প্লজেন।