যার আবিষ্কারে কপাল খোলে বিল গেটস, স্টিভ জবসের|111367|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৫:২২
যার আবিষ্কারে কপাল খোলে বিল গেটস, স্টিভ জবসের
অনলাইন ডেস্ক

যার আবিষ্কারে কপাল খোলে বিল গেটস, স্টিভ জবসের

ইভেলিন বেরেজিন

ইভেলিন বেরেজিন। লেখালেখির গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম কম্পিউটারের ওয়ার্ড প্রসেসর আবিষ্কার করে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন। এমন একটা সময়ে কম্পিউটার নিয়ে কাজ শুরু করেন, যখন ঘরের বাইরে নারীদের পদচারণা ছিল সামান্য। গত ১০ ডিসেম্বর কিংবদন্তি এই নারীকে হারিয়েছে পৃথিবী। ৯৩ বছর বয়সে মারা যান তিনি।

আধুনিক পৃথিবীর জন্য ইভেলিন কতটা গুরুত্বপূর্ণ সেটি বোঝা যায় ব্রিটিশ লেখক গুইন হেডলির কথায়। ২০১০ সালের এক ব্লগ পোস্টে তিনি প্রশ্ন রাখেন, ‘‘এই নারী কেন বিখ্যাত নন?’’

একই লেখায় উত্তরটা নিজেই দিয়েছেন হেডলি, ‘‘ইভেলিনকে ছাড়া একজন বিল গেটস, একজন স্টিভ জবসকে পেত না পৃথিবী। না থাকতো ইন্টারনেট, না থাকতো ওয়ার্ড প্রসেসর।’

হিসাবের খাতা সংরক্ষণ থেকে ব্যাংকের লেনদেন তার আবিষ্কারের কারণে সহজ হয়েছে।

ইভেলিনের মূল কৃতিত্ব অন্য জায়গায়। সত্যিকারের ওয়ার্ড প্রসেসর প্রথম তিনিই বানান। ১৯৬৯ সালে তার প্রতিষ্ঠান রেডাকট্রন করপোরেশন থেকে ডেটা সেক্রেটারি নামে যে মেশিনটি তৈরি করেন, সেটিই এখনকার মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের আদি ভার্সন। তার প্রতিষ্ঠানের সদর দপ্তর ছিল লং আইল্যান্ডে।

রেডাকট্রন ওয়ার্ড প্রসেসর সাধারণ মানুষের জন্য আশীর্বাদ হয়ে আসে। ওজনে ভারি, ধীরগতি এবং প্রচুর শব্দ উৎপাদক হলেও এটি এডিট, ডিলিট, কাট আর পেস্ট করতে পারতো। আইবিএমের মেকানিক্যাল সিস্টেমের ইলেকট্রনিক টাইপ রাইটারের বদলে ইভেলিনেরটা প্রথম সেমিকন্ডাক্টর ব্যবহার করে।

রাশিয়া থেকে আসা ইহুদি বাবা-মায়ের ঘরে ১৯২৫ সালের ১২ এপ্রিল ইভেলিনের জন্ম। ২০১১ সালে লস এঞ্জেলসের ইন্টারন্যাশনাল উইমেন ইন আইটির হল অব ফেমে তিনি জায়গা করে নেন।

ইভেলিনের আবিষ্কার এয়ার লাইন্সের কাজও সহজ করে দেয়। যাত্রীদের তথ্য কিংবা হিসাব রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ১৯৬২ সালে এটি প্রথম ব্যবহার করে যুক্তরাষ্ট্র এয়ার লাইন্স।