শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের ঘোষণা|111463|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২২:১৬
শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের ঘোষণা
নিজস্ব প্রতিবেদক

শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের ঘোষণা

শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে। ছবি: টুইটার

শ্রীলংকার প্রধানমন্ত্রী মাহিন্দা রাজাপক্ষে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন। শুক্রবার রাজাপক্ষের ছেলে ও আইনি পরামর্শক নামাল রাজাপক্ষে সিদ্ধান্তের এই কথা জানিয়ে বলেছেন, ‘দেশের স্থিতিশীলতা রক্ষায় শনিবার তার বাবা প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’

নামাল বলেন, ‘দেশের স্থিতিশীলতার কথা চিন্তা করে প্রধানমন্ত্রী আগামীকাল পদত্যাগ করবেন। তার আগে জাতীর উদ্দেশে ভাষণ দেবেন সাবেক রাষ্ট্রপতি।’ 

রাজাপাক্ষের আইনজীবী লক্ষণ ইয়াপা আবেদ্রেনা জানান, সাবেক রাষ্ট্রপতি বর্তমান রাষ্ট্রপতি শ্রী সেনার সঙ্গে পরামর্শ করে পদত্যাগের ঘোষণা দেন এবং রাষ্ট্রপতিকে নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের অনুরোধ জানান।’ 

এপিকে আবেদ্রেনা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ না করা পর্যন্ত নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ দিতে পারেন না রাষ্ট্রপতি। কিন্তু দেশের বর্তমান অবস্থায় জানুয়ারির আগেই নতুন প্রধানমন্ত্রী আবশ্যক হয়ে পড়েছে। কেননা একটি দেশ বাজেট ছাড়া চলতে পারে না। অতএব রাজাপক্ষে আগামীকাল ভাষণদানের মধ্য দিয়ে পদত্যাগে সম্মত হয়েছেন। ’ 

বৃহস্পতিবার দেশটির সুপ্রিম কোর্ট বর্তমান সরকারকে অসাংবিধানিক আখ্যায়িত করে প্রেসিডেন্ট মৃত্রিপালা শ্রী সেনাকে সাংসদ ভেঙে দেওয়ার আদেশ দেন। দেশের আরেকটি আদালত এই মাসের শুরুতে রাজাপক্ষের উপর অনাস্থা প্রস্তাব আনেন যা সংসদে পাশ হয়।  

দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপ রাষ্ট্র শ্রীলংকায় দুই সপ্তাহ কেনো সরকার ছিল না। আগামী অর্থ বছরে বাজেট পেশ করাও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। দেশটির রাষ্ট্রপতি ৫ জানুয়ারি একটি আগাম নির্বাচনের আয়োজন করেছিল যা উচ্চ আদালত কর্তৃক বাতিল করে দেওয়া হয়। 

শ্রীলংকার এই সংকট সাত সপ্তাহ পুরনো। ২৬ অক্টোবর রাষ্ট্রপতি শ্রী সেনা তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী রণিল ভিক্রম সিংকে বরখাস্ত করে রাজাপক্ষেকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন। এরপর ২২৫ সদস্যের সংসদ নির্বাচনে রাজাপক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে ব্যর্থ হন। দুই দফা সংসদের আস্থা ভোটেও পাশ করতে পারেননি প্রধানমন্ত্রী। ভিক্রম সিং সে সময় থেকে তার বরখাস্তকে বেআইনি উল্লেখ করে প্রতিবাদ  জানিয়ে আসছেন। 
 
রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছেন শ্রী সেনা আবার ভিক্রম সিংকে নিয়োগ দিতে পারেন।