হাবিবুল-পাইলটদের বিপক্ষে নান্নু-রফিকদের জয়|111653|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২০:০৫
হাবিবুল-পাইলটদের বিপক্ষে নান্নু-রফিকদের জয়
অনলাইন ডেস্ক

হাবিবুল-পাইলটদের বিপক্ষে নান্নু-রফিকদের জয়

ছবি: বিসিবি

বিজয় দিবসের উৎসবের দিনের প্রতিবারের মতো মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে বসেছিল সাবেক ক্রিকেটারদের তারার মেলা। দুই দলে ভাগ হয়ে প্রদর্শনী ম্যাচ খেললেন তারা। শহীদ জুয়েল ও শহীদ মোস্তাক একাদশের মধ্যকার ম্যাচটিতে জয়ের হাসি হেসেছে শহীদ মোস্তাক একাদশ।

রোববার ৪৮তম বিজয় দিবস উপলক্ষে আয়োজিত ম্যাচে টস জিতে শহীদ মোস্তাক একাদশ প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়। আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৬০ রান করে হাবিবুল বাশার-খালেদ মাসুদ পাইলটদের শহীদ জুয়েল একাদশ।

জবাবে ১ বল বাকি থাকতে ৪ উইকেটের জয় নিশ্চিত করে মিনহাজুল আবেদীন নান্নু, মোহাম্মদ রফিকদের শহীদ মোস্তাক একাদশ।

হান্নান সরকার ও এহসানুল হক সেজানের ব্যাটে দারুণ শুরু পায় শহীদ জুয়েল একাদশ। উদ্বোধনী জুটিতেই ৬৮ রান যোগ করেন দুই ওপেনার। অবশ্য ১০ রানের ব্যবধানে বিদায় নেন এই দুজন। ৩১ বলে ৪ চারে ৩২ রান করেন হান্নান। সেজান ৩৩ বলে ২ চার ও ১ ছক্কায় করেন ৩৭ রান।

তিন নম্বরে নেমে জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক ও বর্তমান নির্বাচক হাবিবুল বাশার ১২ রান করেন। আরেক সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট খেলেছেন ৩৮ রানের ইনিংস। তার ২৫ বলের ইনিংসে ছিল ৫ চার ও ১ ছক্কা।

পাইলট যখন ফেরেন শহীদ জুয়েল একাদশের দলীয় রান তখন ১৮.৪ ওভারে ৪ উইকেটে ১৪২ রান। একই ওভারের শেষ বলে শূন্য রানেই ফেরেন যান সজল চৌধুরী।

তবে শেষ ওভারে নিয়ামুর রশীদ রাহুল ও হাসিবুল হোসেন শান্ত জুটি তুলেন ১৪ রান। শান্ত শেষ বলে রান আউট হন। ৬ বলে ১৪ রান করেন তিনি। রাহুল ১০ রানে অপরাজিত ছিলেন।

মোহাম্মদ রফিক নিয়েছেন ৫ উইকেট। এ ছাড়া আনোয়ার হোসেন মনির ৩টি ও সফিউদ্দিন বাবু ২ উইকেট নেন।

জবাবে শহীদ মোস্তাক একাদশের শুরুটা ভালো ছিল না। হারুনুর রশীদ লিটন একপ্রান্তে দারুণ খেললেও ২৫ রানে ২ উইকেট হারায় দলটি। দলীয় ৫১ রানে ফেরেন যান লিটনও। ২৭ বলে ২৯ রান করেন তিনি।

পাঁচ নম্বরে নেমে ফয়সাল হোসেন ডিকেন্স দলকে আলো দেখান। তার অপরাজিত অর্ধশতকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে শহীদ মোশতাক একাদশ। তার ৩৪ বলের ইনিংসে ছিল ২ ছক্কা ও ৩ চার।

তাকে সঙ্গ দিয়ে চার নম্বরে নামা মোহাম্মদ রফিক ২১ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ২৭ রান করেন। ছয় নম্বরে নেমে মিনহাজুল আবেদীন নান্নু করেন ২৩ রান। তার ১২ বলের ইনিংসে ছিল ৩ ছক্কা।

আট নম্বরে নামা মুশফিকুর রহমান বাবুকে নিয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন ডিকেন্স। বাবু ৭ বলে ১ ছক্কায় ১৩ রানে অপরাজিত ছিলেন।

শহীদ জুয়েল একাদশের পক্ষে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন মঞ্জুরুল ইসলাম ও হাসিবুল হোসেন শান্ত। ১টি করে উইকেট নেন এনামুল হক মনি ও এহসানুল হক সেজান।