১০এখনই সেনা মোতায়েন চায় বিএনপি |111698|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
১০এখনই সেনা মোতায়েন চায় বিএনপি
নিজস্ব প্রতিবেদক

১০এখনই সেনা মোতায়েন চায় বিএনপি

দেশজুড়ে বিএনপির প্রার্থীদের নির্বাচনের প্রচারের সময় নেতাকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় পুলিশ কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না অভিযোগ তুলে অবিলম্বে সেনাবাহিনীকে মাঠে নামাতে নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবি জানিয়েছে বিএনপি। গতকাল রোববার বিকেলে নির্বাচন ভবনে ইসি কর্মকর্তাদের কাছে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর সাংবাদিকদের কাছে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ তৈরিতে নির্বাচন কমিশন ব্যর্থ হয়েছে। বিএনপির নেতাকর্মীদের ওপর হামলা-গুলি চালানো হচ্ছে। পুলিশ ইসির কথা শুনছে না। ইসি সম্পূর্ণ একটা পাপেট (পুতুল)। এই মুহূর্তে সেনাবাহিনী মাঠে নামাতে হবে। বিএনপি এখনো প্রতিরোধ গড়ে তোলেনি। সেনা নামানো না হলে বিএনপি প্রতিরোধ গড়ে তুলবে।
৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সেনাবাহিনীকে ২৪ ডিসেম্বর মাঠে নামানো এবং ২ জানুয়ারি মাঠ থেকে তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।
সেলিমা বলেন, সিইসি এর মধ্যে বলেছেন, নির্বাচনে সমতল ক্রীড়াভূমি আছে। যেখানে বিএনপি নেতাকর্মী, প্রার্থীদের ওপর হামলা হচ্ছে, সেখানে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড থাকল কী করে? লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডের সংজ্ঞা কীÑ সে প্রশ্ন রাখেন বিএনপির এই ভাইস চেয়ারম্যান।
তিনি বলেন, সরকার চাচ্ছে দশম সংসদের মতো আরেকটি যেনতেন নির্বাচন। এজন্য দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা হচ্ছে। হামলা-মামলার কারণে রাজধানীতে এখন পর্যন্ত বিএনপির প্রার্থীরা প্রচারে নামতে পারেনি। পুলিশ যেন বিএনপির প্রতিপক্ষ; তারা বিএনপি প্রার্থীদের মাঠে থাকতে দিচ্ছে না।
ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, লিখিত অভিযোগগুলো গ্রহণ করেছেন। সেগুলো নিয়ে কমিশনে আলোচনা করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
লিখিত অভিযোগপত্রে বিএনপি প্রার্থী মির্জা আব্বাস, মাহবুবউদ্দিন খোকন, গোলাম মাওলা রনির স্ত্রীর ওপর হামলাসহ বিভিন্ন নির্বাচনী এলাকায় দলটির নেতাকর্মীদের নামে মামলা, গ্রেপ্তার ও হয়রানির বিষয় তুলে ধরা হয়েছে বলে সেলিমা রহমান জানান। চট্টগ্রাম-৯ আসনে বিএনপির কারাবন্দি প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনের পক্ষে গণসংযোগ চালানোর সময় নগর বিএনপির সহসভাপতিকে গ্রেপ্তার এবং ময়মনসিংহের ফুলপুরে বিএনপির আট নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার ও দেড় হাজারের বেশি নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলেও চিঠিতে অভিযোগ করা হয়।
সেলিমা বলেন, এই নির্বাচন বিএনপির কাছে একটা চ্যালেঞ্জ। বিএনপি নির্বাচনের মাঠে থাকতে চায়; কোনো ধরনের সহিংসতা চায় না। বিএনপি এখনো সহিংসতায় যায়নি। এরপর তো আর কিছু বলার নেই। সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য এসব বন্ধে ইসিকে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে চিঠিতে।
বিএনপি নেতাদের মধ্যে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা বিজন কান্তি সরকার ও আতাউর রহমান ঢালি এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন।
সোনাইমুড়ির ওসির প্রত্যাহার চায় বিএনপি
সংঘর্ষের সময় পুলিশের গুলিতে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মাহবুবউদ্দিন খোকন আহত হওয়ার ঘটনায় নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি থানার ওসি আবদুল মজিদকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছে তার পরিবার। মাহবুবউদ্দিন খোকনের ছেলে সাকিব গতকাল বিকেলে সিইসির কাছে লিখিত আবেদন জানান।
আবেদনে তিনি বলেছেন, ‘ওসির গুলিতে বিএনপির প্রার্থীসহ ৪০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। এজন্য ওসিকে অবিলম্বে প্রত্যাহার ও নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে আইনি ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করা হচ্ছে।’