বিরোধী প্রার্থীদের ওপর হামলা, মামলায় টিআইবির উদ্বেগ|111848|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮ ২১:১৬
বিরোধী প্রার্থীদের ওপর হামলা, মামলায় টিআইবির উদ্বেগ
নিজস্ব প্রতিবেদক

বিরোধী প্রার্থীদের ওপর হামলা, মামলায় টিআইবির উদ্বেগ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে টিআইবি। ছবি: মহুবার রহমান

বিরোধী প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারে বাধা, হামলা, মামলা, ভীতি প্রদর্শনসহ নির্বাচনী আচরণবিধির ব্যাপক লঙ্ঘন রোধে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) দৃশ্যমান নিষ্ক্রিয়তায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। 

মঙ্গলবার এক বিজ্ঞপ্তিতে এ উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। বিজ্ঞপ্তিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান বলেন, বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদ অনুযায়ী, নির্বাচনী প্রচারের শুরু থেকে প্রকাশ্যে প্রতিপক্ষের প্রার্থীদের নির্বাচনী কার্যক্রমে মামলা-হামলার মাধ্যমে বাধা, হয়রানি, ভীতি প্রদর্শন মোকাবিলায় নির্বাচন কমিশনের ক্রমাগত ব্যর্থতা, এমনকি উদাসীনতা উদ্বেগজনক পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। 

এতে বলা হয়, রোধী পক্ষের প্রার্থীরা শুধু ক্ষমতাসীন দলের কর্মীদের হাতেই লাঞ্ছিত ও নিগৃহীত হচ্ছেন না, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীও তাদের প্রতি চরম বৈষম্যমূলক আচরণ করছে বলে সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হচ্ছে।
ইফতেখারুজ্জামান বলেন, নির্বাচনী পরিবেশকে কলুষিত করার হীন প্রচেষ্টা কঠোর হাতে দমনের উদ্যোগের পরিবর্তে নির্বাচন কমিশনের নির্লিপ্ত ভাব যেন নিজেকে পাথরের মূর্তিতে পরিণত করেছে। কিছু ফাঁকা বুলি ছাড়া কোনো ধরনের ইতিবাচক দৃষ্টান্ত এখনো কমিশন স্থাপন করতে পারেনি, যা অত্যন্ত বিব্রতকর। 
তিনি আরো বলেন, ভোটকেন্দ্রে ফোন ব্যবহার করার ক্ষেত্রে কমিশনের স্ববিরোধী অবস্থান কমিশনের দুর্বলতার বহিঃপ্রকাশ।  ফোন ব্যবহারের মাধ্যমে অপরাধ সংঘটিত হতে পারে, এই যুক্তিতে ফোনের ব্যবহার বন্ধ করা মাথা ব্যথার কারণে মাথা কেটে ফেলার সমতুল্য। 
বিজ্ঞপ্তিতে নিরপেক্ষ ভূমিকা পালনের দৃষ্টান্ত স্থাপন করে জনগণের আস্থা অর্জনের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছে দুর্নীতিবিরোধী সংস্থাটি।  এ ছাড়া নির্বাচনকালে গণমাধ্যমকর্মীদের স্বাধীন ও নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ করার পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় গাইডলাইন তৈরিতে অংশীজনদের সম্পৃক্ত করার আহ্বান জানানো হয়েছে।