‘মাশরাফী হীরার টুকরা সোনার ছেলে’|112169|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
‘মাশরাফী হীরার টুকরা সোনার ছেলে’
বিশেষ প্রতিনিধি

‘মাশরাফী হীরার টুকরা সোনার ছেলে’

নড়াইল-২ আসনে দলের প্রার্থী মাশরাফী বিন মোর্ত্তজাকে ‘হীরার টুকরা’ ও ‘সোনার ছেলে’ আখ্যা দিয়ে তার জন্য ভোট চেয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। গতকাল বৃহস্পতিবার মাশরাফীর নির্বাচনী এলাকা লোহাগড়ার জনসভায় ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে এ আহ্বান জানান তিনি। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মাশরাফী হীরার টুকরা, সোনার ছেলে, ক্রিকেট খেলোয়াড়। তার নেতৃত্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আমরা হারিয়েছি।আপনারা মাশরাফীকে ভোট দেবেন।

মাশরাফী তার পায়ের ব্যথার জন্য নড়াইলে যেতে পারেনি।  তাকে আমার কাছে রেখেছি।  যারা মনোনয়ন পাননি, তারাও নৌকাকে বিজয়ী করার জন্য কাজ করবেন।’

নড়াইলের দুই আসনে সংসদ সদস্য হওয়ার স্মৃতিচারণ করে জনসভার প্রধান অতিথি শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি যতদিন বেঁচে আছি, ততদিন নড়াইলের এমপি হয়ে থাকব।  নড়াইলের উন্নয়নের জন্য যা যা করা দরকার, আমি তা করব। ২০০১ সালে আমি নড়াইলের দুটি আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলাম। আপনারা আমাকে বিজয়ী করেছিলেন। তাই নড়াইলের প্রতি আমার টান অতীতেও ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘এবার নড়াইল-১ আসনে বিএম কবিরুল হক মুক্তিকে ও নড়াইল-২ আসনে মাশরাফীকে দিয়ে নির্বাচন করাচ্ছি। আপনারা উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। নড়াইলের দুটি সিটই আমাকে উপহার দেবেন।’

ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর পাশ থেকে মাশরাফী বলেন, ‘আমাকে নৌকা মার্কায় মনোনয়ন দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর সম্মান ও সমবেদনা প্রদর্শন করি। নড়াইলবাসী আমার জন্য নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ।’

মাশরাফী তার পায়ের ব্যথার জন্য নড়াইলে যেতে পারেনি।  তাকে আমার কাছে রেখেছি।  যারা মনোনয়ন পাননি, তারাও নৌকাকে বিজয়ী করার জন্য কাজ করবেন।’ নড়াইলের দুই আসনে সংসদ সদস্য হওয়ার স্মৃতিচারণ করে জনসভার প্রধান অতিথি শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি যতদিন বেঁচে আছি, ততদিন নড়াইলের এমপি হয়ে থাকব।  নড়াইলের উন্নয়নের জন্য যা যা করা দরকার, আমি তা করব। ২০০১ সালে আমি নড়াইলের দুটি আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হয়েছিলাম। আপনারা আমাকে বিজয়ী করেছিলেন। তাই নড়াইলের প্রতি আমার টান অতীতেও ছিল, ভবিষ্যতেও থাকবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘এবার নড়াইল-১ আসনে বিএম কবিরুল হক মুক্তিকে ও নড়াইল-২ আসনে মাশরাফীকে দিয়ে নির্বাচন করাচ্ছি। আপনারা উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। নড়াইলের দুটি সিটই আমাকে উপহার দেবেন।’

ভিডিও কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীর পাশ থেকে মাশরাফী বলেন, ‘আমাকে নৌকা মার্কায় মনোনয়ন দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর সম্মান ও সমবেদনা প্রদর্শন করি। নড়াইলবাসী আমার জন্য নির্বাচনী প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন। আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ।’