প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অপকর্মের আগাম ঘোষণা : বিএনপি|112182|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অপকর্মের আগাম ঘোষণা : বিএনপি
নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য অপকর্মের আগাম ঘোষণা : বিএনপি

বিএনপি ভুয়া ব্যালট পেপার ছাপাচ্ছে বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিযোগকে সরকারের অপকর্মের আগাম ঘোষণা হিসেবে দেখছে বিএনপি। গতকাল বৃহস্পতিবার পেশাজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ প্রতিক্রিয়া জানান।

তিনি বলেন, ভুয়া ব্যালট পেপার ছাপানোর বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর অপকর্মের আগাম ঘোষণা। আপনারা প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে প্রায়ই খেয়াল করবেন, যেটা উনি করবেন সেটা আগে বলে দেন। চোরাই ব্যালট ছাপানো। ব্যালট তো ছাপাবেন আপনারা। কারণ ব্যালট ছাপানোর অধিকার আপনাদের। আর ছাপানো হয়েও গেছে।

নির্বাচন সামনে রেখে গত কয়েক দিনে বিভিন্ন এলাকায় দলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে মতবিনিময়ের নির্বাচনে জিততে বিএনপি ভুয়া ব্যালট পেপার ছাপাচ্ছে এবং টাকা ছড়াচ্ছে বলে বেশ কয়েকবার অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। রাজনীতির ব্যাপারে তাদের কোনো চিন্তা নাই, জনগণের ইচ্ছা-অনিচ্ছার বিষয়ে তাদের কোনো চিন্তা নাই। রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য তারা সব চেষ্টা করছে। এখন আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে, মানুষকে জাগিয়ে তোলা। এই রাষ্ট্র জনগণের, প্রতিরোধ তাদেরকেই করতে হবে।

 ‘দেশ ও জাতি এক কঠিন ক্রান্তিলগ্নে উপনীত হয়েছে’ মন্তব্য করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু এ নির্বাচন এরই মধ্যে প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়েছে। বিএনপি সব সময় মনে করেছে, এ নির্বাচনের মাধ্যমে জাতি তাদের আশা-আকাক্সক্ষার প্রতিফলন ঘটাবে। একটি দিন তারা তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করবে। কিন্তু জনগণের দুর্ভাগ্য।

তফসিল ঘোষণার পর থেকে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের আর গ্রেপ্তার করা হবে না বলে সংলাপে দেওয়া প্রতিশ্রুতি প্রধানমন্ত্রী ভঙ্গ করেছেনÑ অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘গ্রেপ্তার চলছেই। বিএনপির ১৪ জন প্রার্থী এখন কারাগারে। নতুন করে প্রতিদিন ২০০ থেকে ৩০০ গ্রেপ্তার হচ্ছে। এখন নতুন করে শুরু হয়েছে আমাদের প্রার্থিতা বাতিল। সেটা কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে জানি না।’

গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এই সভায় পেশাজীবী নেতাদের মধ্যে রুহুল আমিন গাজী, শওকত মাহমুদ, মাহফুজুল্লাহ, অধ্যাপক এ জেড এম জাহিদ হোসেন, অধ্যাপক এ কে এম আজিজুল হক, অধ্যাপক সদরুল আমিন, অধ্যাপক আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, অধ্যাপক তাজমেরী ইসলাম, অধ্যাপক বোরহান উদ্দিন, প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম রিজু ও অধ্যক্ষ সেলিম ভুঁইয়া ছিলেন।