৭ উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রার্থিতা স্থগিত|112185|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
৭ উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রার্থিতা স্থগিত
নিজস্ব প্রতিবেদক

৭ উপজেলা চেয়ারম্যানের প্রার্থিতা স্থগিত

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে উপজেলা চেয়ারম্যান থেকে সংসদ সদস্য পদে লড়া বিএনপি মনোনীত পাঁচজন ও স্বতন্ত্র দুজনের প্রার্থিতা বহাল রেখে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) দেওয়া সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছে হাইকোর্ট। তাদের প্রার্থিতার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আলাদা আবেদনের শুনানি নিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। এ আদেশের ফলে ওই সাতজনের প্রার্থিতা আপাতত স্থগিত রয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা। এর আগে এসব প্রার্থী উপজেলা চেয়ারম্যান পদে থাকার পরও নির্বাচন কমিশন তাদের প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করে আদেশ দিয়েছিল। এর বিরুদ্ধে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বীরা রিট করলে আবেদনের শুনানি নিয়ে প্রার্থিতা স্থগিতের আদেশ আসে।

হাইকোর্টে মনোনয়নপত্র স্থগিত হওয়া বিএনপির প্রার্থীরা হলেন জামালপুর-৪ আসনের ফরিদুল কবির তালুকদার শামী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আসনের মোসলেম উদ্দিন, ঝিনাইদহ-২ আসনের আবদুল মজিদ, জয়পুরহাট-১ আসনের ফজলুর রহমান ও রাজশাহী-৬ আসনের আবু সাঈদ চাঁদ।

স্বতন্ত্র দুজনের একজন হলেন রংপুর-১ আসনের আসাদুজ্জামান বাবলু। তিনি আওয়ামী লীগ থেকে গঙ্গাচড়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন। এই আসনে মহাজোট থেকে মনোনয়ন না পাওয়ায় তিনি স্বতন্ত্র হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেমেছিলেন। অপরজন ময়মনসিংহ-৮ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহমুদ হোসেন। তিনি আওয়ামী লীগের সমর্থনে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। আসন্ন নির্বাচনে ময়মনসিংহ-৮ আসনে দলের পক্ষে নির্বাচনে অংশ নিতে না পেরে স্বতন্ত্র হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন তিনি।

আদালতে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী শাহ্ মঞ্জুরুল হক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, ওই সাত উপজেলা চেয়ারম্যান তাদের পদত্যাগপত্র গৃহীত হওয়ার আগেই সংসদ নির্বাচনের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। একপর্যায়ে ইসি তাদের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করার সিদ্ধান্তও জানান। তিনি বলেন, পৃথক আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্টের ওই বেঞ্চ ইসির সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছে। ফলে তাদের প্রার্থিতাও স্থগিত হয়ে গেছে।

চারজনকে ধানের শীষ বরাদ্দের নির্দেশ এদিকে পৃথক আবেদনের শুনানি নিয়ে চার প্রার্থীকে ধানের শীষ প্রতীক বরাদ্দের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্টের একই বেঞ্চ। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের করা আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেয়। এর মধ্যে মানিকগঞ্জ-১ আসনে বিএনপি মনোনীত এস এ জিন্নাহ কবিরের পরিবর্তে খন্দকার আবদুল হামিদ ডাবলু, নাটোর-১ আসনে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের প্রার্থী মঞ্জুরুল ইসলাম বিমলের পরিবর্তে কামরুন্নাহার শিরিন, নওগাঁ-১ আসনে সালেক চৌধুরীর পরিবর্তে মোস্তাফিজুর রহমান এবং বগুড়া-৩ আসনে আবদুল মুহিত তালুকদারের পরিবর্তে মাসুদা মোমিনকে ধানের শীষ প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী ফারজানা শারমিন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।