ঠাকুরগাঁওয়ে আগুনে ভস্মীভূত হিন্দু পরিবারের বাড়িঘর|112286|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২১ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৭:৩০
ঠাকুরগাঁওয়ে আগুনে ভস্মীভূত হিন্দু পরিবারের বাড়িঘর
ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

ঠাকুরগাঁওয়ে আগুনে ভস্মীভূত হিন্দু পরিবারের বাড়িঘর

শুক্রবার ভোরে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার সিংগিয়া গ্রামে শুক্রবার ভোরে এক হিন্দু পরিবারে বাড়ি-ঘর আগুনে ভস্মীভূত হয়েছে। ছবি: দেশ রূপান্তর।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলায় এক হিন্দু পরিবারের বাড়ি-ঘরে আগুন লাগার খবর পাওয়া গেছে। আগুনে গবাদিপশু সহ প্রায় ৫ লাখ টাকার মালামাল ভস্মীভূত হয়েছে বলে দাবি করেছে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার।

সদর উপজেলার সিংগিয়া গ্রামে শুক্রবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার অজ্ঞাত দুষ্কৃতকারীদের দায়ী করলেও ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তার ধারণা বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকে এই অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের কর্তা মটা সাহা ঘোষ জানায়, ৪টি ঘর, ৭ টি ছাগল, হাঁস-মুরগি, ৬০ মন ধান, নগদ ১০ হাজার টাকা, ১ ভরি সোনা আগুনে পুড়ে ছাই হয়। কে বা কারা ঘরে আগুন লাগিয়েছে তা তারা দেখেন নি।

মটা সাহার ছেলে কৃষ্ণ চন্দ্র ঘোষ অভিযোগ করে বলেন, একদল সন্ত্রাসী তাদের ঘরে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়। ঘর থেকে বের হওয়ার সময় আগুন লেগে তার গাল ঝলসে যায় বলে জানায় সে। প্রথমে প্রতিবেশীরা আগুন নেভাবার চেষ্টা করে। পরে দমকল বাহিনী এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঠাকুরগাঁও জেলা পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তপন কুমার ঘোষ বলেন, যেই-ই আগুন লাগাক না কেন, সুষ্ঠু তদন্ত দাবি করে তাদের আইনের আওতায় আনা হোক।

ঠাকুরগাঁও ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মফিদার রহমান বলছেন, এ অগ্নিকাণ্ড বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকে ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ধরা হয়েছে ২ লাখ টাকা।

ঠাকুরগাঁও থানার ওসি (তদন্ত ) চিত্ত রঞ্জন রায় বলেন, এটি নাশকতা নয়, তদন্তের পরে ঘটনা উন্মোচন হবে। ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেছে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ ও বিজিবি।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে বলেন, বিষয়টি নাশকতা কিনা গুরুত্বের সঙ্গে দেখে তদন্ত করা হচ্ছে। তাৎক্ষণিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ১৫টি কম্বল, নগদ ৭ হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিকেলে জেলা প্রশাসক ৪ বান্ডিল টিন ও শুকনা খাবার বিতরণ করেন।