আমার প্রস্তুতিতে ঘাটতি ছিল|112431|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
আমার প্রস্তুতিতে ঘাটতি ছিল
সুদীপ্ত সাইদ খান

আমার প্রস্তুতিতে ঘাটতি ছিল

চীনের সানাইয়া শহরে সদ্য অনুষ্ঠিত মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী। জায়গা করে নিয়েছেন টপ ৩০-এ। ২০ ডিসেম্বর ঐশী এসেছিলেন ‘দেশ রূপান্তর’ কার্যালয়ে। তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন সুদীপ্ত সাইদ খান

সাধারণ থেকে তারকা ...

ভালো লাগছে। দেশের মানুষের সাপোর্ট পাচ্ছি, প্রশংসা পাচ্ছি। সবচেয়ে বড় ব্যাপার হচ্ছে আমি আমার দেশকে বিদেশের মাটিতে রিপ্রেজেন্ট করতে পেরেছি। এটাই সবচেয়ে বেশি আনন্দের।

ফল ঘোষণার আগেই বিজয়ী ...

সে সময় নিউজটা কারা করেছে জানি না। তারা কার কাছ থেকে এটা শুনেছিল, সেটা জানলে ভালো লাগত। তবে প্রতিযোগিতা চলাকালীন আমাকে নিয়ে মানুষের একটা প্রত্যাশা তৈরি হয়েছিল। এ কারণেই হয়তো ফল ঘোষণার আগেই আমার নামটা উচ্চারিত হয়েছিল।

বিশ্বমঞ্চের জন্য প্রস্তুতি ...

আসলে আমার তেমন কোনো প্রিপারেশন ছিল না। তবে ডেডিকেশন আর প্রচেষ্টার মাধ্যমে সেরা ত্রিশে জায়গা করে নিয়েছি। এটা আমার সৌভাগ্য। প্রথমবারের মতো ইতিহাস তৈরি করতে পেরেছি সেটা আমার কাছে বড় ব্যাপার ছিল।

অভিজ্ঞতা ...

দারুণ অভিজ্ঞতা হয়েছে। আমরা ইংরেজিতেই কথা বলেছি। ফলে চাইনিজদের সঙ্গে তেমন কথা বলতে হয়নি। তবে খাওয়া-দাওয়া নিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়েছিল। কারণ চাইনিজ খাবারে আমি অভ্যস্ত ছিলাম না। আর একটা সমস্যা ছিল। আমার প্রস্তুতিতে ঘাটতি ছিল। আমাকে ভারতীয় একজন নামকরা প্রশিক্ষক দিয়ে গ্রুমিং করানোর কথা থাকলেও করানো হয়নি।

স্বপ্নভঙ্গ ...

প্রতিযোগিতায় নাম ঘোষণা হওয়ার পর আমি আনন্দিত হয়েছিলাম। কারণ ভ্যানেসা শতভাগ যোগ্য প্রার্থী ছিলেন। তাছাড়া ভ্যানেসার সঙ্গে আমার সম্পর্ক ছিল বোনের মতো। কিন্তু স্বপ্নভঙ্গ তখনই হয়েছে যখন সেরা ১২-তে আমি নির্বাচিত হইনি। আমি ছিলাম ১৩তম। আমার আফসোস সেখানেই।

ভুলত্রুটি ...

এখন পর্যন্ত একটা কথাই বলব আমি যাওয়ার আগে অসুস্থ ছিলাম। আর আমার একটা ভিডিও প্রেজেন্টেশন ছিল, সেই ভিডিওটা করা হয়নি। সেটা করতে পারলে আমি অনেকদূর এগিয়ে যেতে পারতাম।

বিচারকদের সুদৃষ্টি ...

গেল বছরের মিস ওয়ার্ল্ড ভারতের মানুষী চিল্লার আমাকে অনেক আদর করতেন। অনেক ভালো মানুষ ছিলেন তিনি। সে কারণে সবাই বলত যে সে শুধু তোমাকেই বেশি আদর করে। তবে তারা কেউ আমাকে হিংসা করেনি।