গরু নিয়ে কথা বলে তোপে নাসিরুদ্দিন শাহ|112459|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১১:১২
গরু নিয়ে কথা বলে তোপে নাসিরুদ্দিন শাহ
অনলাইন ডেস্ক

গরু নিয়ে কথা বলে তোপে নাসিরুদ্দিন শাহ

গো-হত্যার বিক্ষোভে পুলিশ খুনের ঘটনায় মুখ খুলে বিপাকে পড়েছেন বলিউডের প্রবীণ অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ। হিন্দুত্ববাদী কয়েকটি সংগঠনের বিক্ষোভের মুখে রাজস্থানের আজমীর শহরে তার একটি অনুষ্ঠান বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

বিবিসি বাংলা জানায়, আজমীর সাহিত্য উৎসবে শুক্রবারই মূল ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল নাসিরুদ্দিন শাহর। ওই শহরের স্কুলে তিনি পড়াশোনা করেছেন।

গত সপ্তাহে দেওয়া একটি সাক্ষাতকারে নাসিরুদ্দিন শাহ বলেছিলেন, ভারতে একজন পুলিশ অফিসারের মৃত্যুর থেকেও বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে গরু মারা যাওয়ার ঘটনা।

প্রসঙ্গত, ডিসেম্বরের শুরুর দিকে উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে গো-হত্যাকে কেন্দ্র করে সহিংস বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। ওই বিক্ষোভে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়।

ওই ঘটনায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ কর্মকর্তাদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে তিনি বেশি গুরুত্ব দিয়েছিলেন কীভাবে গো-হত্যা হলো সেই তদন্তের ওপর। আর পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হওয়াকে ‘দুর্ঘটনা’ বলে মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী।

বুলন্দশহরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে নাসিরুদ্দিন শাহ বলেন, “যারা আইন লঙ্ঘন করছে তারাই কলার উঁচিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এ দেশে গরুর গুরুত্ব একজন পুলিশ কর্মকর্তার প্রাণের চেয়ে বেশি!”

তিনি বলেন, “এ ঘটনায় আমি ভীত। আমার বারবার মনে হচ্ছে, কোনো একদিন হয়তো উম্মত্ত জনতা আমার সন্তানদের ধরে জিজ্ঞাসা করবে- তারা হিন্দু নাকি মুসলিম। আমি তো কখনো তাদের ধর্মীয় শিক্ষা দেইনি। তারা তো এর উত্তর দিতে পারবে না।”

প্রবীণ এই অভিনেতার এমন বক্তব্যে চটেছে হিন্দুত্ববাদী দল ও সংগঠনগুলো। এনডিটিভি এবং হিন্দুস্তান টাইমসসহ বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম জানায়, শুক্রবারও আজমীর সাহিত্য উৎসব চত্বরে হিন্দুত্ববাদী ভারতীয় জনতা যুব মোর্চাসহ বেশ কয়েকটি সংগঠনের সদস্যরা হাজির হয়ে স্লোগান দিতে থাকেন।

এসময় কালি মাখিয়ে দেওয়া হয় নাসিরুদ্দিন শাহর পোস্টারে। তারা দাবি করতে থাকেন, নাসিরুদ্দিন শাহকে যেন ওই অনুষ্ঠানে বলতে না দেওয়া হয়।

সাহিত্য উৎসবের অন্যতম কর্মকর্তা সোমরতন আরিয়া বলেন, “ওই হাঙ্গামার পরে আমরা আর ঝুঁকি না নিয়ে তার অনুষ্ঠানটা বাতিল করে দিয়েছি। অতিথিদের নিরাপত্তা নিয়েই আমরা চিন্তিত ছিলাম।”