জনগণের মুখে হাসি নাই: মির্জা ফখরুল|112494|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৮:১৫
জনগণের মুখে হাসি নাই: মির্জা ফখরুল
নীলফামারী প্রতিনিধি

জনগণের মুখে হাসি নাই: মির্জা ফখরুল

শনিবার নীলফামারীতে নির্বাচনী জনসভায় ভাষণ দেন মির্জা ফখরুল। ঝবি: দেশ রূপান্তর

একাদশ সংসদ নির্বাচনের কোনো পরিবেশ নাই উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জনগণের মুখে হাসি নাই।

তিনি বলেন, নির্বাচনে যে লেভেল প্লেয়িং তৈরির কথা ছিল তা নাই, নির্বাচনের জন্য যে সুন্দর মাঠ থাকার কথা সেই মাঠ আজ নাই।

শনিবার দুপুরে নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে অফিসার্স ক্লাব স্টার মাঠে নীলফামারী-৪ আসনের দলীয় প্রার্থী আমজাদ হোসেন নির্বাচনী জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আওয়ামী লীগ এমনভাবে ব্যবহার করছে যেন মনে হয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আওয়ামী লীগের চাকরি করে।

তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশে বলেন, আপনারা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী। আপনারা কোনো দল বা ব্যক্তির কর্মচারী কিংবা কর্মকর্তা নন। আপনাদের নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে হবে। আওয়ামী লীগের কথায় যখন-তখন গণগ্রেপ্তার করা যাবে না।

বিএনপি চেয়ারপারসন কারাবন্দী থাকায় এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান লন্ডনে থাকায় দলটির প্রধান নেতার দায়িত্ব পালন করছেন মির্জা ফখরুল।

শনিবার নির্বাচনী জনসভায় তিনি আরো বলেন, আপনারা দেশের মানুষ, আপনারাই এই দেশের মালিক। এই দেশ আপনাদের। সুতরাং আপনারা ভয় পাবেন না, ভয় করবেন না। আপনাদের অধিকার আপনরা আদায় করে নিন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ৩০ ডিসেম্বর আপনারা সকাল সকাল ভোট কেন্দ্র যাবেন এবং আপনাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেবেন। আর ভোট শেষে ভোট গণনা শেষে বাড়ি ফিরবেন।

‘আপনার অধিকার আপনি রক্ষা করতে না পারলে কেউ আপনার অধিকার রক্ষা করতে পারবে না। যারা জোর করে অধিকার নিতে চাই তারা এ দেশের শক্র।’

তিনি বলেন, এত অত্যাচার, নিপীড়নসহ শত শত মামলা দিয়েও আমাদের দমিয়ে রাখতে পারেনি। আজ সৈয়দপুরসহ দেশের প্রত্যেক নির্বাচনী এলাকায় বিএনপির নির্বাচনী সমাবেশে মানুষের ঢল নামে।

আওয়ামী লীগের সাহস নেই মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, গণতন্ত্র ও আমাদের মাতা মহীয়সী নেত্রী খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে বন্দি করে রেখেছেন। সাহস থাকে তো খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে নির্বাচন করতে দিন।

নির্বাচন কমিশন ঠুঠো জগন্নথ মন্তব্য করে তিনি বলেন, ঢাল নাই তলোয়ার,নাই তাই তারা কিছু করতে পারে না। কিছু বললেই তারা অসহায়ের মতো  চুপচাপ বসে থাকেন। আমরা আগেই বলেছি এই নির্বাচন কমিশন দিয়ে দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না।

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ গত ১০ বছরে একটি পাথর হয়ে আমাদের বুকের ওপর চেপে বসে রয়েছে। এই পাথর দিয়ে তারা আমাদের বাকস্বাধীনতা, মৌলিক অধিকার কেড়ে নিয়ে রাষ্ট্রযন্ত্রকে একে একে ধ্বংস করে দিয়েছে।

উন্নয়নের নামে আওয়ামী লীগ নিজেদের উন্নয়ন ঘটিয়েছে মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘জনগণের পকেট কেটে টাকা চুরি করে আওয়ামী লীগ সরকার নিজেদের পকেট ভর্তি করেছে। বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানিসহ সবকিছুর দাম বাড়িয়ে বাড়িয়ে মানুষের ক্রয় ক্ষমতা  বাইরে চলে গেছে।’

সৈয়দপুর রাজনৈতিক জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল গফুর সরকারের সভাপতিত্বে এ সময় ধানের শীষের প্রার্থী আমজাদ হোসেন সরকার ভজে, বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য বিলকিস ইসলামসহ স্থানীয় বিএনপি নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।