১৩ বছরেও চালু হয়নি বাস টার্মিনাল|112598|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
১৩ বছরেও চালু হয়নি বাস টার্মিনাল
রাজীব আহম্মেদ রাজু, গোপালগঞ্জ,

১৩ বছরেও চালু হয়নি বাস টার্মিনাল

গোপালগঞ্জের পৌর বাস টার্মিনাল উদ্বোধন হয়েছে এক যুগেরও বেশি সময় আগে। কিন্তু নানা অজুহাতে এখনো তা চালু হয়নি। স্থানীয় বাস মালিক সমিতি ও পৌর কর্তৃপক্ষের সদিচ্ছার অভাবেই টার্মিনালটি চালু হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। টার্মিনালটি চালু না হওয়ার কারণে শহরের বিভিন্ন স্থানে বাস রাখায় যানজট তৈরি হচ্ছে।

ঢাকা-খুলনা মহাসড়ক সংলগ্ন গোপালগঞ্জ শহরতলির কারারগাতীতে ১৩ বছর আগে প্রায় ৫ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত বাস টার্মিনালটি ২০০৫ সালের ২ জুলাই উদ্বোধন হলেও এখনো চালু হয়নি। অযতœ-অবহেলায় টার্মিনাল ভবনটি নষ্ট হচ্ছে। পাশাপাশি শহরের কুয়াডাঙ্গার পুরোনো বাস টার্মিনালটিতে স্থান সংকুলান না হওয়ায় সব পথে চলাচলকারী বাসগুলো পুলিশ লাইন মোড় থেকে গেটপাড়া পর্যন্ত সড়কের যত্রতত্র রাখায় যানজট তৈরি হচ্ছে। এ কারণে জেলা প্রশাসন বাসগুলো প্রধান সড়কে না রাখার জন্য বারবার মালিক সমিতির নেতাদের অনুরোধ করেছেন। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

২০০৭ সালের সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে কিছুদিন টার্মিনালটি চালু থাকলেও পরে অজ্ঞাত কারণে সেটি বন্ধ হয়ে যায়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন বাস মালিক অভিযোগ করেন, বাস মালিক সমিতি ও পৌর কর্তৃপক্ষের সদিচ্ছার অভাবে এতদিনেও টার্মিনালটি চালু করা যায়নি।

স্থানীয় কয়েকজন জানান, নতুন বাস টার্মিনালটির অবস্থান শহরতলির হরিদাসপুর ও বেদগ্রামের মধ্যবর্তী স্থানে। এটি বেদগ্রামবাসীর জন্য সুবিধাজনক স্থানে পড়েছে। বাস টার্মিনালটি চালু করা হলে সেখানে হরিদাসপুরের মানুষের তেমন কর্তৃত্ব থাকে না। এ কারণেই মূলত বাস টার্মিনালটি চালু করা হচ্ছে না।

গোপালগঞ্জ জেলা বাস মালিক সমিতির নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক শেখ মুশফিকুর রহমান লিটন বলেন, নতুন বাস টার্মিনালটি আয়তনে ছোট হওয়ায় গোপালগঞ্জ থেকে চলাচলকারী সব পথের বাস এখানে রাখা সম্ভব হয় না। যে কারণে টার্মিনালটি চালু করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে ভবিষ্যতে পুলিশ লাইনের সামনে আয়তনে বড় ও দৃষ্টিনন্দন একটি আধুনিক বাস টার্মিনাল তৈরি করার উদ্যোগ রয়েছে। সেটি নির্মাণ হলে শহরের কুয়াডাঙ্গা, পুলিশ লাইন এলাকায় যানজট থাকবে না।

নতুন বাস-টার্মিনালটি চালু না হওয়ার কারণ হিসেবে গোপালগঞ্জ পৌরসভার মেয়র কাজী লিয়াকত আলী বলেন, পুলিশ লাইন এলাকায় নয়, ভবিষ্যতে কারারগাতী এলাকার বাসস্ট্যান্ডটিই আয়তনে বড় ও দৃষ্টিনন্দন করে চালু করার ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কারণ বর্তমান বাস টার্মিনালটি আয়তনে ছোট হওয়ায় এটি চালু করা সম্ভব হচ্ছে না।

এলজিইডি গোপালগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী এ কে ফজলুল হক বলেন, কারারগাতীতে ২০০৫ সালে আমরা একটি আধুনিক বাস টার্মিনাল নির্মাণ করি। লক্ষ্য ছিল শহরের যানজট কিছুটা হলেও কমানো। বাস মালিকরা চাইলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নতুন বাসস্ট্যান্ড চালু হবে।