কিডনি খুঁজছেন সাবেক বিশ্ব সুন্দরী|112674|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৩ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১৪:০৬
কিডনি খুঁজছেন সাবেক বিশ্ব সুন্দরী
অনলাইন ডেস্ক

কিডনি খুঁজছেন সাবেক বিশ্ব সুন্দরী

কিডনি জটিলতায় ভুগছেন ‘মিস ইন্টারন্যাশনাল ২০১৩’ বিয়া রোজ সান্তিয়াগো। ছবি: ফেসবুক থেকে

বিয়া রোজ সান্তিয়াগো ২০১৩ সালে মিস ইন্টারন্যাশনাল খেতাব জিতে বিশ্বজুড়ে পরিচিত যান। সম্প্রতি এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে এ সুন্দরী জানান, বেঁচে থাকার জন্য তার শরীরে কিডনি প্রতিস্থাপন করতে হবে।

ডেইলি মেইল পত্রিকার এক প্রতিবেদনে জানা যায়, আগস্ট থেকে ভয়াবহ কিডনি জটিলতায় ভুগছেন বিয়া। এর পর চার মাস নিয়মিত ডায়ালাইসিস করছেন। ইতিমধ্যে চিকিৎসক বলে দিয়েছেন, শিগগিরই তার কিডনি প্রতিস্থাপন করতে হবে।

রোজ বলেন, আমার কিডনি কাজ করছে না। হ্যাঁ, আমার জীবন বাঁচানোর জন্য কিডনি প্রতিস্থাপন দরকার। আমি ডায়ালাইসিস মেশিনের মাধ্যমে বেঁচে আছি।

৬৬ জন প্রতিযোগীকে হারিয়ে মিস ইন্টারন্যাশনাল খেতাব জিতেছিলেন ফিলিপাইনের বিয়া রোজ সান্তিয়াগো। ২০১৭ সালে মাথাব্যথা ও অন্য কিছু সমস্যায় চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন তিনি। তখন জানা যায় ক্রনিক কিডনি ডিজেজে (সিকেডি) ভুগছেন রোজ। যার কারণে এক সময় কিডনি কার্যক্ষমতা হারিয়ে ফেলবে।

কিন্তু নিজ দেশের চিকিৎসকদের কথায় আস্থা রাখতে পারেননি রোজ। এর পর উড়ে যান জাপানের টোকিওতে। সেইখানকার চিকিৎসকরা একই কথা বললে কানাডার টরন্টোতে পরিবারের সঙ্গে যোগ দেন। বর্তমানে কিডনির ডোনার খুঁজছেন।

ডাক্তারি পরীক্ষার পর ফিলিপাইনের টিভি শো ‘বালিটাঙ্গালি’তে নিজের অসুস্থতা নিয়ে মুখ খোলেন এ সুন্দরী। সেখানে অসুস্থতার জন্য এমজিএ পাউডার নামের ফুড সাপ্লিমেন্টকে দায়ী করেন। কারণ এতে রয়েছে উচ্চমাত্রার ক্রিয়েটিন। যা কিডনি কার্যকারিতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে।

বর্তমানে সপ্তাহ একদিন টরন্টো জেনারেল হাসপাতালে হোম হেমোডায়ালাইসিস ইউনিটে পাঁচ ঘণ্টার ডায়ালাইসিসে অংশ নেন রোজ। আর তার বাসা থেকে হাসপাতালে যেতে লাগে দুই ঘণ্টা। বেশ শ্রমসাধ্য যাতায়াত সত্ত্বেও রোজ জানান, তিনি আত্মবিশ্বাসী।

ইনস্টাগ্রামে রোজ তার অনুসারীদের নিজেদের স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন থাকতে বলেন। পাশাপাশি জানান, এ রোগ নিয়ে নিয়মিত তাদের জানাবেন।

আরও জানান, কিন্তু সহানুভূতি পাওয়ার আশায় অসুখের খবর প্রকাশ করেননি। বরং সবাইকে সচেতন করতে চান।

রোজ ফিলিপাইনের মান্টিনলুপায় জন্মগ্রহণ করেন। ২০১১ সালে তিনি প্রথমবার সুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। দুই বছর পর জেতেন মিস ইন্টারন্যাশনালের মুকুট যা বিশ্বের বড় চার সুন্দরী প্রতিযোগিতার একটি। অন্যগুলো হলো মিস ওয়ার্ল্ড, মিস ইউনিভার্স ও মিস আর্থ।