১৮ মাস বেতন পাচ্ছেন না ১২ গেইটকিপার|112732|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
১৮ মাস বেতন পাচ্ছেন না ১২ গেইটকিপার
গাজীপুর প্রতিনিধি

১৮ মাস বেতন পাচ্ছেন না ১২ গেইটকিপার

গাজীপুরের ধীরাশ্রম ও মীরেরবাজার লেভেল ক্রসিংয়ের ১২ অস্থায়ী গেইটম্যান ১৮ মাস বেতন পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। দীর্ঘদিন বেতন না পাওয়ায় সংসার চালান এমনকি কারো কারো সন্তানের লেখাপড়া বন্ধের উপক্রম হয়েছে।

জানা গেছে, ঢাকা বিভাগীয় রেল প্রকৌশল বিভাগের অধীনে গাজীপুরের ধীরাশ্রম ও মীরেরবাজার লেভেল ক্রসিংয়ে ১২ জন গেইটকিপার রয়েছে। অস্থায়ী নিয়োগের ভিত্তিতে তাদের মাসিক বেতন ১৩ হাজার ৫০০ টাকা। কিন্তু বরাদ্দ নেই অজুহাতে গত ১৭ মাস ধরে তাদের বেতন বন্ধ রয়েছে। বেতন না পাওয়ায় তারা সংসার চলাচ্ছেন ধারদেনা করে। পাওনাদারের চাপে অনেকে দিশেহারা। টাকার অভাবে অনেকের ছেলে-মেয়ের লেখাপড়া বন্ধের উপক্রম। গেইটকিপাররা বিভাগীয় প্রকৌশলীর কাছে গেলে তিনি দেখা দেন না বলেও অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

ধীরাশ্রমের গেইটকিপার মামুন মিয়া বলেন, মৃত্যু ছাড়া সামনে কোনো পথ দেখতে পাচ্ছেন না। দুই সন্তানের একজন পঞ্চম ও একজন দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ত। টাকার অভাবে স্কুলে যাওয়া বন্ধ হয়ে গেছে। সংসার চালাতে গিয়ে ৭৫ হাজার টাকা ঋণ হয়েছে। বাধ্য হয়ে স্ত্রী গার্মেন্টসে চাকরি নিয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা চেষ্টা করলে দ্রুত বরাদ্দ আনা সম্ভব। কিন্তু চিঠি লেখা ছাড়া আর কোনো উদ্যোগ নেই তাদের।

রেল প্রকৌশল বিভাগের টঙ্গী জোনের ঊর্ধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী মোজাম্মেল হক বলেন, এ দুই লেভেল ক্রসিংয়ের ১২ গেইটকিপারের বেতন সড়ক ও জনপথ বিভাগ দেন। শর্ত অনুযায়ী বেতনের টাকা সড়ক ও জনপথ বিভাগ অগ্রিম রেলপথ বিভাগকে দিয়ে থাকে। কিন্তু গত অর্থবছরে বরাদ্দ শেষ হওয়ার পর বারবার চিঠি দেওয়ার পরও নতুন করে টাকা বরাদ্দ না দেওয়ায় ওই ১২ জনের বেতন ১৮ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে কথা বলার জন্য রেলওয়ের ঢাকা বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী এম ছালাম বলেন, ‘বরাদ্দ এলে বেতন দেওয়া হবে।’