পাসে এগিয়ে ভোলা পিছিয়ে ঝালকাঠি|112934|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
বরিশালে জেএসসি
পাসে এগিয়ে ভোলা পিছিয়ে ঝালকাঠি
বরিশাল প্রতিনিধি

পাসে এগিয়ে ভোলা পিছিয়ে ঝালকাঠি

বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীন জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষায় জেলাভিত্তিক পাসের হারে এগিয়ে রয়েছে ভোলা। জিপিএ ৫-এর দিক থেকে এগিয়ে আছে বরিশাল। আর পাসের হার ও জিপিএ ৫-এ পিছিয়ে রয়েছে ঝালকাঠি।

বোর্ডে এ বছর পাসের হার ৯৭ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ। এর মধ্যে ভোলায় পাস করেছে ৯৮ দশমিক ৬৬ শতাংশ শিক্ষার্থী। বোর্ড থেকে এ বছর চার হাজার ৬০৯ শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। এর মধ্যে বরিশাল জেলার দুই হাজার ১৪ শিক্ষার্থী রয়েছে। বাকি পাঁচ জেলার ২ হাজার ৫৬৮ শিক্ষার্থী পায় জিপিএ ৫।

জেলাভিত্তিক পাসের হারে এগিয়ে থাকা ভোলা জেলায় ২৮২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ২০ হাজার ১৫৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। তাদের মধ্যে পাস করেছে ১৯ হাজার ৮৮৩ জন। আর জিপিএ ৫ পেয়েছে ৯৭০ জন।

দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বরগুনা জেলার ১৮৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ১২ হাজার ৩১৪ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। তাদের মধ্যে পাস করেছে ১২ হাজার ২৯ জন। পাসের হার ৯৭ দশমিক ৬৯ ভাগ। জিপিএ ৫ পেয়েছে ৫৭১ জন। অন্যদিকে তৃতীয় অবস্থানে থাকা পটুয়াখালী জেলার ৩০৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ১৯ হাজার ৬১৬ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। তাদের মধ্যে পাস করেছে ১৯ হাজার ৭১ জন। পাসের হার ৯৭ দশমিক ২২ শতাংশ। আর জিপিএ ৫ পেয়েছে ৬০৬ জন।

চতুর্থ অবস্থানে থাকা বরিশাল জেলার ৪৬২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ৩৭ হাজার ৬৮২ পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করে ৩৬ হাজার ৫৬৪ জন। পাসের হার ৯৭ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ। বিভাগে পিছিয়ে থাকা ঝালকাঠি জেলার ১৯৮টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে ১০ হাজার ৫৮৭ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। পাস করেছে ৯ হাজার ৯৬৩ জন। পাসের হার ৯৪ দশমিক ১১ ভাগ। জিপিএ ৫ পেয়েছে ২৬৩ জন।

পাসে এগিয়ে মেয়েরা : বোর্ডে জেএসসিতে পাসের হার ও জিপিএ ৫Ñ দুটোতেই ছেলেদের পেছনে ফেলেছে মেয়েরা। গত বছরও দুই মানদণ্ডে মেয়েরা এগিয়ে ছিল। প্রকাশিত ফলে দেখা যায়, এ বছর বরিশাল শিক্ষা বোর্ড থেকে এক লাখ ১৪ হাজার ৮৫৭ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়েছে। উত্তীর্ণ হয়েছে ১ লাখ ১১ হাজার ৪৬৯ জন। এর মধ্যে মেয়েদের সংখ্যা ৫৯ হাজার ৯০৩। পাসের হার ৯৭ দশমিক ৭২ শতাংশ। আর উত্তীর্ণ হওয়া ছেলেদের সংখ্যা ৫১ হাজার ৫৬৬ জন। পাসের হার ৯৬ দশমিক ২৮ ভাগ। ছেলেদের চেয়ে ৮ হাজার ৩৩৭ জন বেশি মেয়ে শিক্ষার্থী পাস করে। এ বছর বরিশাল শিক্ষা বোর্ডে ৩ হাজার ১০৫ মেয়ে শিক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। অন্যদিকে জিপিএ ৫ পায় ১ হাজার ৮০১ ছেলে।  ধারাবাহিকভাবে মেয়েদের এগিয়ে থাকার বিষয়ে বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আনোয়ারুল আজীম দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘বর্তমান সময়ে অভিভাবকরা মেয়েদের শিক্ষার ক্ষেত্রে বেশি আন্তরিক।'