মাথা ফেটে রক্তাক্ত গয়েশ্বর|113186|Desh Rupantor
logo
আপডেট : ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০
সহিংসতা অব্যাহত
মাথা ফেটে রক্তাক্ত গয়েশ্বর
রূপান্তর ডেস্ক

মাথা ফেটে রক্তাক্ত গয়েশ্বর

নির্বাচন সামনে রেখে সোমবার গভীর রাত থেকে গতকাল মঙ্গলবার রাতে এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অন্তত ১১টি আসনে সহিংসতার খবর পাওয়া গেছে। সোমবার সেনা মোতায়েনের প্রথম দিন অন্তত ২০টি আসনে সহিংসতা হয়। গতকাল নির্বাচনী প্রচারে নেমে ঢাকার কেরানীগঞ্জে ধানের শীষের প্রার্থী গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও বাগেরহাটের রামপালের শেখ আব্দুল ওয়াদুদ আহত হয়েছেন। চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে আহত হয়েছেন নৌকা মার্কার প্রার্থীর ১০ সমর্থক। এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে নৌকা ও ধানের শীষের নির্বাচনী কার্যালয়ে  হামলা ও আগুন দেওয়া হয়েছে। এসব ঘটনায় পাল্টাপাল্টি অভিযোগ পাওয়া গেছে। এদিকে, হামলার আশঙ্কায় গতকাল সকালে গণসংযোগ কর্মসূচি বাতিল করেন চট্টগ্রাম-১০ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমান।

নিজস্ব প্রতিবেদক, ব্যুরো অফিস, জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

কেরানীগঞ্জ : বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কেরানীগঞ্জের কদমতলী চৌরাস্তা এলাকায় প্রচারে গিয়ে আহত হয়েছেন ঢাকা-৩ (কেরানীগঞ্জ) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তার ব্যক্তিগত সহকারী মো. শাহিন আলম দেশ রূপান্তরকে জানান, হামলায় গয়েশ্বরের মাথা ফেটে গেছে এবং তাকে রাজধানীর কাকরাইলে ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী অভিযোগ করেন, গয়েশ্বর রায় চুনকুটিয়া কদমতলা এলাকায় কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রচারকালে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। এতে তিনিসহ অর্ধশতাধিক কর্মী-সমর্থক আহত হয়েছেন।

মোংলা : বিকেলে রামপাল উপজেলার উত্তর গৌরম্ভার বটতলা মোড়ে বাগেরহাট-৩ (রামপাল-মোংলা) আসনে নৌকা ও ধানের শীষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে বিএনপির প্রার্থী শেখ আব্দুল ওয়াদুদসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। ছয়জনকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
রামপাল থানার ওসি শেখ লুৎফর রহমান জানান, ধানের শীষের প্রার্থী কর্মীদের নিয়ে লিফলেট বিতরণের সময় আওয়ামী সমর্থকদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে এ সংঘর্ষ বাধে। ধানের শীষের ছয় সমর্থককে আটক করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম ব্যুরো : সকালে সীতাকুণ্ডে নৌকার পক্ষে প্রচারকালে পেট্রলবোমা ও ককটেল হামলায় অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি জানিয়েছেন, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ভাটিয়ারী এলাকায় চট্টগ্রাম-৪ (সীতাকুণ্ড) আসনে নৌকার প্রার্থী সাংসদ দিদারুল আলমের পক্ষে গণসংযোগের সময় পেট্রলবোমা ও ককটেল ছোড়া হয়। এ সময় আহত পাঁচজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। চট্টগ্রাম-১১ (পতেঙ্গা ও বন্দর) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী আমীর খসরু মাহমুদের ব্যক্তিগত সচিব মো. সেলিম অভিযোগ করেছেন, বিকেলে চট্টগ্রামের কাট্টলী এলাকায় প্রচারকালে প্রতিপক্ষের কর্মীদের হামলায় অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছে। এদিকে প্রতিপক্ষের হামলার আশঙ্কায় সকালে পূর্বনির্ধারিত গণসংযোগ কর্মসূচি বাতিল করেন চট্টগ্রাম-১০ (পাহাড়তলী-হালিশহর-খুলশী) আসনে ধানের শীষের প্রার্থী বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান।

নাটোর : সকালে নাটোর-৪ (বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর) আসনে নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থীদের সমর্থকরা ঘণ্টাব্যাপী ইটপাটকেল ছোড়াছুড়ি করে। একপর্যায়ে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা দুটি মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে গেলে বিএনপি সমর্থকরা তা ভাঙচুর করে। বড়াইগ্রাম থানার ওসি দিলীপ কুমার দাস জানান, র্যাব, বিজিবি ও পুলিশের উপস্থিতির কারণে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

সোনারগাঁও (নারায়ণগঞ্জ) : দুপুরে নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) আসনে মহাজোটের প্রার্থী লিয়াকত হোসেন খোকার সমর্থকরা স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল্লাহ আল কায়সারের সমর্থকদের ওপর হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় যুবলীগের কার্যালয় ও ১০টি মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করা হয় এবং সাংবাদিকসহ ১৫ জন আহত হন বলে দাবি করেছেন কায়সার সমর্থকরা। সোনারগাঁও থানার ওসি (তদন্ত) সেলিম মিয়া বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়।

সোনাগাজী (ফেনী) : বিকেলে পৌরসভার ফায়ার সার্ভিস কার্যালয় সংলগ্ন স্থানে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ধানের শীষের প্রার্থীর প্রচারের মাইক ভাঙচুর ও তিন কর্মীকে পিটিয়ে আহত করেছে বলে অভিযোগ করেছেন সোনাগাজী উপজেলা বিএনপির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন। এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল মোতালেব রবিন।

নীলফামারী : গত সোমবার গভীর রাতে রামনগর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের চরচরাবাড়ি মোদোর মোড় বাজারে নৌকা মার্কার প্রার্থী সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূরের নির্বাচনী কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগের খবর অভিযোগ পাওয়া গেছে। নীলফামারী থানার ওসি মোমিনুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে জামায়াত-শিবিরের তিন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর : জেলা জেএসডির সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বেলাল হোসেন জানান, গতকাল দুপুরে কমলনগর উপজেলার ফজু মিয়ার হাটে লক্ষ্মীপুর-৪ (রামগতি-কমলনগর) আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী আ স ম আবদুর রবের নির্বাচনী ক্যাম্পে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর করা হয়। এ ছাড়া ইমামগঞ্জ ও রব বাজারে নির্বাচনী ক্যাম্পে ভাঙচুর চালানো হয়। রামগঞ্জ থানার ওসি ইকবাল হোসেন বলেন, ‘ঘটনা আংশিক সত্য। দুটি কার্যালয়ে চেয়ার-টেবিল তছনছ করা হয়েছে। একটি চেয়ার আগুন দিয়ে পুড়ে দেওয়া হয়েছে।’

মুন্সীগঞ্জ : বাউশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা সারোয়ার বিপ্লব অভিযোগ করেছেন, গত সোমবার গভীর রাতে পুরান বাউশিয়া এলাকায় মুন্সীগঞ্জ-৩ (সদর-গজারিয়া) আসনে নৌকার প্রার্থী মৃণাল কান্তি দাসের ক্যাম্পে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাসীরা। এতে ক্যাম্পের আংশিক পুড়ে গেছে। গজারিয়া থানার ওসি মো. হারুন-অর-রশিদ জানান, নির্বাচনী ক্যাম্পে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় গতকাল সকালে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইসহাক আলীসহ ৫০-৬০ জনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।

ঝালকাঠি : আওয়ামী লীগের অভিযোগ, গত সোমবার মধ্যরাতে রাজাপুরের গালুয়া ইউনিয়নের চারাখালী গ্রামে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বজলুল হক হারুনের নির্বাচনী কার্যালয়ে ধানের শীষের প্রার্থী শাহজাহান ওমরের সমর্থকরা আগুন দেয়। রাজাপুর থানার ওসি মো. জাহিদ হোসেন জানান, ‘গতকাল সকালে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি।’